বিপিএল এর শিরোপা জিতলো কুমিল্লা

তামিমের দুর্দান্ত এক অতিমানবীও ইনিংসের ওপর ভর করে বিপিএলের ষষ্ঠ আসরের শিরোপা জিতলো কুমিল্লা ভিক্টোরিয়ান্স। ফাইনালে তারা ঢাকা ডায়নামাইটসকে হারায় ১৭ রানে। বিপিএলে এটি কুমিল্লার দ্বিতীয় শিরোপা।

শুক্রবার ফাইনালে মিরপুরে, প্রথমে ব্যাট করতে নেমে ২০ ওভা্র খেলে কুমিল্লা তোলে ৩ উইকেটে ১৯৯ রান। সেখানে তামিমের একার ব্যাট থেকেই আসে ১৪১ রান। ৬১ বলে ১৪১ রানের এক অতিমানবীয় ইনিংস খেলে অপরাজিত থাকেন তিনি। তার স্ট্রাইক রেট ছিল ২৩১.১৪, । বাকি ব্যাটসম্যানরা মিলে করেছেন ৫৯ বলে ৪৭! অতিরিক্ত থেকে এসেছে বাকি ১১ রান।

রান তাড়া করতে নেমে ঢাকা জবাবটা ভালোই দিচ্ছিল। যদিও দ্বিতীয় বলেই রান আউট হন সুনিল নারাইন। কিন্তু উপুল থারাঙ্গা ও রনি তালুকদার দুর্দান্ত খেলে জমিয়ে তোলেন ম্যাচ। জিইয়ে রাখেন ঢাকার সম্ভাবনা। দ্বিতীয় উইকেটে দুজনের জুটিতে শতরান আসে ৫০ বলেই। শেষ পর্যন্ত এই জুটিকে থামান থিসারা পেরেরা। ২৭ বলে ৪৮ করে আউট হন থারাঙ্গা। ৩৮ বলে তার ৬৬ রানের এক দুর্দান্ত ইনিংসটি খেলেন রনি, যা শেষ হয় এনামুল হকের সরাসরি থ্রোয়ে, রান আউটে। আর তখনি খেলে চলে যায় কুমিল্লার নিয়ন্ত্রণে।

সাকিব আল হাসান ও পারেননি সেই পরিস্থিতি নিজেদের দিকে টানতে। আন্দ্রে রাসেল, কাইরন পোলার্ড পারেননি ঝড় তুলতে। শেষ দিকে আসা কিছু রানে কমেছে হারের ব্যবধান।

খেলার সংক্ষিপ্ত স্কোর:
কুমিল্লা ভিক্টোরিয়ান্স: ২০ ওভারে ১৯৯/৩ (তামিম ১৪১*, লুইস ৬, এনামুল ২৪, শামসুর ০, ইমরুল ১৭*; রাসেল ৪-০-৩৭-০, রুবেল ৪-০-৪৮-১, সাকিব ৪-০-৪৫-১, নারাইন ৪-০-১৮-০, অনিক ২-০-১৯-০, শুভাগত ১-০-১৪-০, মাহমুদুল ১-০-১২-০)।

ঢাকা ডায়নামাইটস: ২০ ওভারে ১৮২/৯ (থারাঙ্গা ৪৮, নারাইন ০, রনি ৬৬, সাকিব ৩, পোলার্ড ১৩, রাসেল ৪, সোহান ১৮, শুভাগত ০, মাহমুদুল ১৫, রুবেল ৫*, অনিক ১*; সাইফ ৪-০-৩৮-২, মেহেদি ৩-০-৩০-০, ওয়াহাব ৪-০-২৮-৩, সঞ্জিত ১-০-১০-০, আফ্রিদি ৪-০-৩৭-০, থিসারা ৪-০-৩৫-২)।

ফল: কুমিল্লা ১৭ রানে জয়ী
ম্যান অব দা ম্যাচ: তামিম ইকবাল
ম্যান অব দা টুর্নামেন্ট: সাকিব আল হাসান

print

LEAVE A REPLY