অ্যাথলেটিকো মাদ্রিদকে ৩-১ গোলে হারিয়েছে রিয়ালের মাদ্রিদ

মাদ্রিদ ডার্বিতে অ্যাথলেটিকো মাদ্রিদকে তাদের ঘরের মাঠ ওয়ান্ডা মেট্রোপলিটানোতে ৩-১ গোলে হারিয়েছে রিয়াল মাদ্রিদ। এ জয়ে তারা উঠে এসেছে পয়েন্ট টেবিলের দ্বিতীয় স্থানে।

ওয়ান্ডা মেট্রোপলিটানো স্টেডিয়ামে শনিবারের খেলায় কাসেমিরোর অসাধারণ এক গোলে দুর্দান্ত শুরু করে রিয়াল মাদ্রিদ। শেষ দিকে ১০ জনের দলে পরিণত হওয়া আতলেতিকোকে ৩-১ গোলে হারায় রিয়াল। রিয়ালের হয়ে বাকি দুই গোল করেন সার্হিও রামোস ও গ্যারেথ বেল।

‌‌‌দর্শনীয় এক গোলে ম্যাচের ষষ্ঠদশ মিনিটে দলকে এগিয়ে দেন কাসেমিরো। টনি ক্রুসের কর্নার ডিফেন্ডাররা বিপদমুক্ত করতে ব্যর্থ হলে ছোট ডি-বক্সে বল পেয়ে অনেকটা বাইসাইকেল কিকের মতো নেওয়া ভলিতে গোলরক্ষককে পরাস্ত করেন ব্রাজিলিয়ান এই মিডফিল্ডার। তবে তার গোলের লিড বেশিক্ষণ রাখতে দেননি গ্রিজম্যান। ম্যাচের ২০ মিনিটে চোখে লেগে থাকার মতো এক গোল করে দলকে সমতায় ফেরান তিনি।

এদিন গোল পেয়েছেন রিয়াল অধিনায়ক সার্হিও রামোস। তাকে গোল পেতে সহায়তা করেছেন ব্রাজিল তরুণ ভিনিসিয়াস। তিনি এ ম্যাচে রিয়ালের সেরা তারকা ছিলেন। তার গতির কাছে হার মেনে বক্সে ফাউল করলে পেনাল্টি পায় রিয়াল। যদিও ফাউলিটি পেনাল্টি নাকি ফ্রি কিক তা নিয়ে আছে প্রশ্ন।

দলের দারুণ এই জয়ের ম্যাচে গ্যারেথ বেল করেছেন রিয়ালের হয়ে শততম গোল। ৫৮তম মিনিটে তরুণ ব্রাজিলিয়ান ফরোয়ার্ড ভিনিসিউসকে বসিয়ে বেলকে নামান কোচ। আর ৭২ মিনিটে গোল পান বেল। লুকা মদ্রিচের পাস ডি-বক্সে পেয়ে কোনাকুনি শটে গোলটি করেন ওয়েলসের এই ফরোয়ার্ড।

এই ম্যাচে মোট ৩৭ বার ফাউলের বাঁশি বাজিয়েছেন রেফারি; আতলেতিকো করেছে ২১টি, রিয়াল ১৬। আর ‌মোট ১১ বার হলুদ কার্ড দেখিয়েছেন রেফারি। এর মধ্যে আতলেতিকোর মিডফিল্ডার টমাস মার্টে ৮০তম মিনিটে ক্রুসকে ফাউল করে দ্বিতীয় হলুদ কার্ড দেখে মাঠ ছাড়েন। এক জন কম নিয়ে বাকি সময়ে আর তেমন লড়াই-ই করতে পারেনি আতলেতিকো।

২৩ ম্যাচে ১৪ জয় ও তিন ড্রয়ে দ্বিতীয় স্থানে ওঠা রিয়াল মাদ্রিদের পয়েন্ট ৪৫। তিন নম্বরে নেমে যাওয়া আতলেতিকোর পয়েন্ট ৪৪। এক ম্যাচ কম খেলা বার্সেলোনা ৫০ পয়েন্ট নিয়ে শীর্ষে।

print

LEAVE A REPLY