কোটি টাকা হাতিয়ে পালানোর সময় থাই নাগরিক আটক

কোটি টাকা প্রতারণার অভিযোগে থাই নাগরিককে আটক করেছে শাহজালাল বিমানবন্দর ইমিগ্রেশন পুলিশ। আটক থাই নাগরিকের নাম কিয়াতকাতি সমিয়ত। রবিবার সন্ধ্যায় থাইল্যান্ডে যাওয়ার চেষ্টাকালে ইমিগ্রেশন পুলিশ তাকে আটক করে।

কিয়াতকাতি সমিয়তের বিরুদ্ধে প্রতারণার মামলা হওয়ার প্রেক্ষিতে সে গোপনে বাংলাদেশ ত্যাগ করার চেষ্টা করলে ইমিগ্রেশন পুলিশ তাকে আটক করে।

জানা যায়, ১ কোটি টাকা প্রতারণার অভিযোগে সম্প্রতি আদালতে অমিত গ্রুপের পক্ষ থেকে মামলা দায়ের করা হয়। আদালত মামলাটি তদন্তের জন্য পুলিশ ব্যুরো অব ইনভেস্টিগেশনকে (পিবিআই) দ্বায়িত্ব দেয়। পিবিআই ইমিগ্রেশন পুলিশকে তার বর্হিগমন রোধের জন্য অনুরোধ করে। বিষয়টি টের পেয়ে সমিয়ত রবিবার সন্ধ্যায় থাইল্যান্ডে যাওয়ার প্রাক্কালে শাহজালাল বিমানবন্দরে ইমিগ্রেশনের জন্য গেলে ওই সময় পুলিশ তাকে আটক করে।

মামলা সূত্রে জানা যায়, ২০১৭ সালে সমিয়ত থাই রিক্রিয়েশন ক্লাবের শেয়ার হস্তান্তরের জন্য অমিত গ্রুপের নিকট ৩ কোটি টাকার চুক্তি হয়। চুক্তি মোতাবেক ওই দিন ১ কোটি টাকার চেক নেন সমিয়ত। পরবর্তীতে দীর্ঘদিন তিনি শেয়ার ট্রান্সফার না করে টালবাহানা করতে থাকেন। এক পর্যায়ে অমিত গ্রুপ জানতে পারে ২০১১ সালেই সমিয়ত অন্য এক প্রতিষ্ঠানের নিকট শেয়ার হস্তান্তর করেন। পরে অমিত গ্রুপ প্রতারণার শিকার হয়েছে বুঝতে পেরে আদালতে মামলা দায়ের করে। আর মামলার প্রেক্ষিতেই আটক হয় সমিয়ত।

ইমিগ্রেশন পুলিশের এক কর্মকর্তা সমিয়তকে আটকের সত্যতা নিশ্চিত করেছেন।

বি প্র

print

LEAVE A REPLY