৮ বছরের শিশুকে হত্যার পর মাটিচাপা!

যশোরে একদিন আগে নিখোঁজ হওয়া আট বছর বয়সী শিশু আফরিন তৃষার মরদেহ উদ্ধার করেছে পুলিশ। হাত-পা বাঁধা ও মুখে কাপড় গোঁজা অবস্থায় মরদেহটি বস্তায় মুড়িয়ে মাটিচাপা দেওয়া ছিল।

সোমবার সন্ধ্যা ৭টার দিকে স্থানীয় বাসিন্দাদের কাছ থেকে খবর পেয়ে পুলিশ মরদেহটি উদ্ধার করে। এ সময় মরদেহের শরীরে কোনো পোশাক ছিল না।

নিহত তৃষা যশোর শহরের ধর্মতলা এলাকার তরিকুল ইসলামের মেয়ে। তরিকুল ওই এলাকার জাকিরের বাড়িতে ভাড়া থাকেন।

তরিকুল ইসলাম বলেন, তাঁর মেয়ে তৃষা শহরের কারবালা সরকারি প্রাথমিক বিদ্যালয়ের দ্বিতীয় শ্রেণিতে পড়ত। রোববার বিকেলে স্কুল থেকে বাড়ি ফিরে খেলতে বের হয় সে। এরপর থেকে তার কোনো খোঁজ পাওয়া যাচ্ছিল না। পরে এ ব্যাপারে থানায় একটি সাধারণ ডায়েরি (জিডি) করা হয়। সোমবার সন্ধ্যায় বাড়ি থেকে ৩০ গজ দূরে একটি নতুন গর্ত দেখে এলাকাবাসীর সন্দেহ হলে গর্তটি খুঁড়তেই মরদেহ পাওয়া যায়। এলাকাবাসী ধারণা করছে, ধর্ষণের পর শিশুটিকে হত্যা করা হয়ে থাকতে পারে।

মরদেহ উদ্ধারের খবর পেয়ে ঘটনাস্থলে যান যশোর কোতোয়ালি থানার পরিদর্শক (তদন্ত) সমীর কুমার। তিনি বলেন, ‘শিশুটি নিখোঁজ ছিল। মরদেহ উদ্ধারের খবর পেয়ে আমরা ঘটনাস্থলে এসেছি। ময়নাতদন্তের জন্য মরদেহ মর্গে নেওয়া হচ্ছে। কে বা কারা এ হত্যাকাণ্ডের সঙ্গে জড়িত তা খতিয়ে দেখা হচ্ছে।’ শিশুটিকে কীভাবে হত্যা করা হয়েছে তা ময়নাতদন্তের পর জানা যাবে বলে জানান ওসি।

print

LEAVE A REPLY