জার্মানির ফ্রাঙ্কফুর্টে বর্ষবরণ উৎসব

হাবিবুল্লাহ আল বাহার, জার্মানি: নানা আয়োজনের মধ্য দিয়ে জার্মান প্রবাসী বাংলাদেশিরা বাংলা নববর্ষ উদযাপন করেছেন। জার্মান প্রবাসী বাংলাদেশিদের ঐতিহ্যবাহী সংগঠন বাংলাদেশ কল্যাণ ট্রাস্ট বাংলা নতুন বছরকে বরণ করে নিতে ফ্রাঙ্কফুর্টে আয়োজন করে বৈশাখী উৎসবের।

রোকন ফয়সালের পরিচালনায় অনুষ্ঠানের শুরুতে শুভেচ্ছা বক্তব্য রাখেন সংগঠনের প্রতিষ্ঠাতা ও সভাপতি মঞ্জুর হোসেন সরকার। জার্মানিতে বসবাসকারী বিপুলসংখ্যক প্রবাসী বাংলাদেশি বর্ষবরণ উৎসবে অংশগ্রহণ করেন। অনুষ্ঠানে কমিউনিটি নেতাদের মধ্যে বক্তব্য রাখেন মাসুদ রেজা, হাফিজুর রহমান আলম, খালেদ ইসলাম, আবু সেলিম, মাহফুজ ফারুক, খান লিটন প্রমুখ।

সার্বিক সহযোগিতায় ছিলেন মিতা সরকার, শিখা ফয়সাল, সামিমা আক্তার, রাসেল হাসান, ফজলু মিয়া, রেশমা বেগম, মানিন সরকার, দেলোয়ার হোসেন, নিজাম উদ্দিন, মাসুদ কবির, সানজিতা, সামাদ মিয়া, ইসহাক মোল্লা, তান্নি প্রমুখ।

জার্মানি প্রবাসী শিল্পী রিয়েল আনোয়ার, হ্যাপি উদ্দিন, শিরিন আলম, কাইফ খান এবং অন্যান্য শিল্পীদের একের পর এক দেশীয় গান অনুষ্ঠানকে করে তুলেছিল প্রাণবন্ত।

উৎসবে শিশু-কিশোরদের অংশগ্রহণ এবং তাদের নাচ গান অনুষ্ঠানকে করে তুলেছিল আনন্দময়। বৈশাখী সাজে সজ্জিত প্রবাসী বাঙালি নারীদের অংশগ্রহণ ছিল লক্ষণীয়। শিশু-কিশোর থেকে শুরু করে প্রাপ্তবয়স্ক সবাই মগ্ন ছিলেন বৈশাখী উৎসবে। বৈশাখী গান, দেশাত্মবোধক এবং পুরনো দিনের গান-সবকিছু মিলিয়ে পুরো অনুষ্ঠান যেন হয়ে উঠেছিল প্রবাসের বুকে এক টুকরো বাংলাদেশ।

একটি অরাজনৈতিক আয়োজন হিসেবে দলমতের ঊর্ধ্বে উঠে সবাই এই অনুষ্ঠানে অংশগ্রহণ করেন, ফলে বৈশাখী উৎসবটি পরিণত হয়েছিল প্রবাসী বাংলাদেশিদের মিলনমেলায়। প্রবাসী বাংলাদেশীরা জানান, নববর্ষ বাঙালির সার্বজনীন প্রাণের উৎসব। প্রবাসের শত ব্যস্ততার মাঝে এই উৎসব সবার জীবনে নিয়ে আসে নতুন করে পথচলার উদ্দীপনা। নতুন করে ভালোবাসতে শেখায় দেশকে এবং দেশীয় সংস্কৃতিকে।

আয়োজকেরা জানান, সুদূর প্রবাসে থেকেও তারা বাংলা সংস্কৃতির প্রতি প্রবল ভালোবাসা থেকেই এই উৎসবের আয়োজন করেছেন। আয়োজনের মূল উদ্দেশ্য ছিল প্রবাসে বেড়ে ওঠা নতুন প্রজন্মকে দেশের ইতিহাস ও সংস্কৃতি সম্পর্কে ধারণা দেয়া।

প্রবাসে বসবাসকারী নবীন-প্রবীণ সকলের কাছে সুন্দর বাংলা সংস্কৃতিকে বেশি বেশি করে তুলে ধরতে তারা বদ্ধপরিকর বলে জানান।

print

LEAVE A REPLY