শুভ্র প্রানের শুভ্র প্রয়াশ ‘শুভ্রতা’

শুভ্রতা! খুবি সাধারন একটি শব্দ। কারো কাছে কেবলই একটি শব্দ, কিন্তু এই সাধারন শব্দটি আবার কারো কাছে বিশেষ অর্থপূর্ণ ও অসাধারন। কেননা এর মাধ্যমেই যে মুছে ফেলা যায় যেকোনো অন্ধকারকে। আর আমাদের সমাজের এমন অনেক ধূসর কালো আঁধারকে দূর করার জন্য, কিছু শুভ্র হৃদয়ের তরুণ মিলে গড়ে তুলেছে ‘শুভ্রতা’।

‘শুভ্রতা’ সমাজের সুবিধাবঞ্চিত মানুষদের নিয়ে কাজ করা একটি স্বেচ্ছাসেবী সংগঠন। যার যাত্রা শুরু হয় ২০১৬ সালের ২৬ ডিসেম্বর কয়েকজন কলেজ ছাত্রের হাত ধরে। হাতেগোনা কয়েকজন অদম্য তরুণ মিলে যাত্রা শুরু করলেও বর্তমানে শুভ্রতার সদস্য সংখ্যা প্রায় ছয় হাজারেরও বেশি।

আজ শ্রমিক দিবসে, শ্রমজীবী মানুষের অধিকার ও জীবনমানের পরিবর্তনের লক্ষে, ‘শুভ্রতা’ তাদের আগামী এক বছরের জন্য নতুন কমিটি প্রকাশ করেছে। যেখানে কেন্দ্রীয় কমিটিতে পি, এম, খালিদ হাসান মাহিন- সভাপতি, শেখ রবিউল ইসলাম- সাধারণ সম্পাদক, এম মাসুম রানা- সাংগঠনিক সম্পাদক এবং তারেক আজিজ সুমন- প্রচার সম্পাদক হিসেবে মনোনীত হয়েছেন।

‘শুভ্রতা’র কেন্দ্রীয় কমিটির সভাপতি- পি, এম, খালিদ হাসান মাহিন

শুভ্রতা ফাউন্ডেশনটি ২০১৬ সালের ২৬ ডিসেম্বর পথশিশুদের নিয়ে কাজ শুরু করে। এর পর আর কখনো থেমে থাকতে হয়নি। রাজধানী থেকে শুরু করে যার কার্যক্রম পরবর্তীতে দেশের বিভিন্ন জেলায় বিস্তার লাভ করে।

‘শুভ্রতা’র কেন্দ্রীয় কমিটির সাধারণ সম্পাদক-শেখ রবিউল ইসলাম

ঢাকার পলাশীতে পথশিশুদের জন্য শীতবস্ত্র বিতরণের মধ্য দিয়ে শুভ্রতার প্রথম ইভেন্ট শুরু হয়। প্রতি বছর শীতবস্ত্র বিতরণ, ঈদে নতুন পোষাক ও খাদ্য সামগ্রী প্রদান, আর বিশেষ বিশেষ দিনগুলোতে সুবিধা বঞ্চিত শিশুদের জন্য বিনোদনমূলক ইভেন্টের আয়োজন করে আসছে সংসঠনটি। সেই সাথে বিভিন্ন সময় ঢাকায় পথশিশুদের জন্য শিক্ষা কর্মসূচি চালিয়ে যাচ্ছে।

‘শুভ্রতা’র কেন্দ্রীয় কমিটির প্রচার সম্পাদক- তারেক আজিজ সুমন

ধারাবাহিকভাবে, প্রতি বছর ৪/৫টি ইভেন্ট ছাড়াও বিভিন্ন সময় বৃদ্ধ-অসহায় মানুষের জন্য করে দিয়েছেন কর্মসংস্থানের ব্যবস্থা আর গরিব, মেধাবী ছাত্রদের মেধাববৃত্তি প্রদানের মাধ্যমে সাধারণ শিক্ষার্থীদের কাছে মধ্যমনি হয়ে ওঠেছে ‘শুভ্রতা’।

এ সংস্থার প্রধান উদ্দেশ্যগুলোর মধ্যে রয়েছে-

১. সুবিধা বঞ্চিত মানুষদের সহায়তা করা।
২. জনসচেতনতা-মূলক বিভিন্ন কাজে সবাইকে সম্পৃক্ত করা।
৩. সারাদেশের মানুষের মধ্যে পারস্পরিক সমঝোতা বৃদ্ধি করা।

এ বিষয়ে সংস্থাটির প্রধান জানান, “বিভিন্ন জেলায় ‘শুভ্রতা’র যে টিম রয়েছে তা নিয়ে পর্যায়ক্রমে বিভিন্ন জেলা শাখা কমিটি ঘোষণা করা হবে।” সেই সাথে তিনি আশা প্রকাশ করেন, শুভ্রতা তাদের শুভ্র প্রয়াশ পৌঁছে দিবে সমাজের সকল স্তরের সকল অবহেলিত ও সুবিধাবঞ্চিত মানুষের দ্বারে।

print

LEAVE A REPLY