এবার শ্রীলঙ্কায় মসজিদ গুঁড়িয়ে দিলো উগ্রবাদীরা

শ্রীলঙ্কায় নতুন করে কয়েকটি মসজিদ ও মুসলমানদের দোকান গুঁড়িয়ে দিয়েছে দেশটির কয়েকশ উগ্রবাদী নাগরিক। পরিস্থিতি নিয়ন্ত্রণ করতে  সারাদেশে কারফিউ জারি করেছে প্রশাসন। সোমবার  শ্রীলঙ্কার প্রশাসন ও সংশ্লিষ্টদের বরাতে এ খবর দিয়েছে বার্তা সংস্থা রয়টার্স।

এ বিষয়ে দেশটির পুলিশ কর্মকর্তা রুয়ান গুনাসেকারা জানান, ‘রাত নয়টা থেকে ভোর চারটা পর্যন্ত (স্থানীয় সময়) কারফিউ বহাল থাকবে। ফেসবুক, টুইটার, হোয়াটসঅ্যাপসহ সামাজিক যোগাযোগমাধ্যমগুলো সাময়িকভাবে বন্ধ রাখা হয়েছে। দেশটির একটি এলাকায় ফেসবুক স্ট্যাটাস নিয়ে বিবাদ সৃষ্টির পর সরকার এ সিদ্ধান্ত নিয়েছে।’

বার্তা সংস্থা রয়টার্সকে নাম প্রকাশে অনিচ্ছুক এক মুসলিম বলেন, ‘এ হামলায় কয়েকশ উগ্রবাদী নাগরিক অংশ নিয়েছেন। তারা আমাদের মসজিদ ও দোকানগুলোতে আগুন ধরিয়ে দিয়েছেন, গুঁড়িয়ে দিয়েছেন। এ সময় সেনাবাহিনী ও পুলিশ ছিল, তারা বাধা হয়ে দাঁড়ায়নি। কেমল নিরবে দাঁড়িয়ে দেখে গেছে।’

তিনি আরও বলেন, ‘ঘটনার সময় আমরা বাড়ি থেকে বের হতে গেলে পুলিশ বাধা দিয়েছে। আমাদের বাড়ির ভেতরে থাকতে বলা হয়।’

উল্লেখ্য, গত ২১ এপ্রিল খ্রিস্টান ধর্মাবলম্বীরা ইস্টার সানডে উদযাপনকালে শ্রীলঙ্কার বাণিজ্যিক রাজধানী কলম্বো ও আশপাশের তিনটি গির্জা, তিনটি হোটেলসহ ৮টি জায়গায় একযোগে হামলা চালায়। ওই হামলায় ২৫৩ জনের প্রাণহানি ঘটে। নিহতদের একজন বাংলাদেশি শিশু। এ ছাড়াও ৩৯ জন বিদেশি প্রাণ হারান। ওই ঘটনা দায় স্বীকার করে নেয় জঙ্গিগোষ্ঠী ইসলামিক স্টেট (আইএস)।

 

print

LEAVE A REPLY