বিএসএমএমইউ-তে চিকিৎসকদের বিক্ষোভ, নিয়োগ পরীক্ষা স্থগিত

অবশেষে চাকরিপ্রার্থী চিকিৎসকদের আন্দোলনের মুখে বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিব মেডিকেল বিশ্ববিদ্যালয়ের (বিএসএমএমইউ) মেডিকেল অফিসার পদে নিয়োগ পরীক্ষা স্থগিত করা হয়েছে।

আজ মঙ্গলবার দুপুরে বিএসএমএমইউ উপাচার্য অধ্যাপক ডা. কনক কান্তি বড়ুয়া নিয়োগ পরীক্ষা স্থগিতের ঘোষণা দেন।

এদিকে বেলা ২টা পর আন্দোলনকারী শিক্ষার্থীরা ভিসির কক্ষের সামনে থেকে স্লোগান দিতে দিতে সরে যান। এ সময় তারা জানান, চিকিৎসক নিয়োগের মৌখিক পরীক্ষা সাময়িকভাবে স্থগিত করা হয়েছে। এটা স্থায়ীভাবে স্থগিত করা না হলে আন্দোলন চলবে।

চলতি বছরের ২০ মার্চ বিএসএমএমইউতে ২০০ চিকিৎসক নিয়োগের জন্য লিখিত পরীক্ষা হয়। পরীক্ষায় ব্যাপক অনিয়মের অভিযোগ ওঠে। ঐ লিখিত পরীক্ষায় একটি পদের জন্য চারজন পাস করেন। এ হিসাবে ৭১৯ মেডিকেল অফিসার ও ডেন্টালের ৮১ জন মিলে ৮২০ জন লিখিত পরীক্ষায় উত্তীর্ণ হন।

ফল ঘোষণার পর পরই সুযোগবঞ্চিত চাকরিপ্রার্থীরা বিক্ষোভে ফেটে পড়েন। গত ২২ মার্চ মেডিকেল অফিসার নিয়োগ পরীক্ষা বাতিলের দাবিতে সকালে শান্তিপূর্ণভাবে কর্মসূচি শুরু করেন চাকরিপ্রার্থী চিকিৎসকরা। আন্দোলনের অংশ হিসেবে গত রোববার সকালে তারা উপাচার্যের অফিসে যেতে চাইলে নিরাপত্তাকর্মীদের (পুলিশ-আনসার) হামলায় প্রায় ১৫ জন চিকিৎসক আহত হন। এ সময় হাতাহাতির ঘটনাও ঘটে।

এদিকে চাকরিপ্রার্থী চিকিৎসকদের আন্দোলন চলার মধ্যেই চূড়ান্ত নিয়োগের লক্ষ্যে গতকাল সোমবার থেকে উত্তীর্ণদের মৌখিক পরীক্ষা নেয়া শুরু হয়। কিন্তু তার একদিন পরই আজ নিয়োগ পরীক্ষা স্থগিতের ঘোষণা দেয়া হলো।

print

LEAVE A REPLY