ভারত বিশ্বকাপে ফেভারিট বাংলাদেশ!

ইংল্যান্ড বিশ্বকাপ এখন বাংলাদেশের অতীত। বীরত্বগাঁথা, পরিসংখ্যান, সুখস্মৃতি আর কিছু হতাশা খুঁজতে ২০১৯ সালে ইংল্যান্ডে অনুষ্ঠিত এই বিশ্বকাপ মনে রাখবে বাংলাদেশ। সময় বয়ে যাবে তার মতো করে। আরেকটি বিশ্বকাপের প্রস্তুতি নেবে লাল-সবুজের দেশ। ইংল্যান্ড বিশ্বকাপের ভুলগুলি শুধরে নিলে সেবার আরো বেশি দুরত্ব পার করা সম্ভব হবে। ২০২৩ সালে বিশ্বকাপ বসছে ভারতের মাটিতে। অধিনায়ক মাশরাফি জানালেন, বিশ্বকাপ যেহেতু ভারতে হবে তাই সেবার ফেভারিটের তালিকায় থাকবে বাংলাদেশ।

ক্যারিয়ারের শেষ প্রান্তে মাশরাফি বিন মর্তুজা, মধ্যগগণে সাকিব, তামিম, মুশফিক, মাহমুদউল্লাহ। ভেন্যু-ইংল্যান্ড, যেখানে অস্ট্রেলিয়া, ইংল্যান্ড, নিউজিল্যান্ডের মতো দলকে হারানোর সুখস্মৃতি আছে। ইতিহাসে সবচেয়ে অভিজ্ঞ দল নিয়ে বিশ্বকাপ যাত্রা। এই কারণে এবারের বিশ্বকাপে বাংলাদেশকে নিয়ে দারুণ আশাবাদী ছিলেন সমর্থকরা। সমর্থকদের আশা পূরণ হয়নি। গ্রুপ পর্ব থেকেই বাদ পড়তে হয়েছে টাইগারদের। দশ দেশের মধ্যে বাংলাদেশের অবস্থান সপ্তম। দক্ষিণ আফ্রিকা অস্ট্রেলিয়াকে হারিয়ে দিলে হয়ে যাবে অষ্টম। সাকিব আল হাসান, মুস্তাফিজুর রহমান ও মুশফিকুর রহিম বাদে বাকি ক্রিকেটাররা সমর্থকদের মনের আশা পূরণ করতে ব্যর্থ হয়েছেন।

ব্যর্থতার ভুলে এখন সামনে এগিয়ে যাওয়ার সময়। আগামী বিশ্বকাপের জন্য এখন থেকেই দল গোছানো শুরু করতে হবে। অধিনায়ক মাশরাফি বিন মতুর্জা ভারতের অনুষ্ঠিত বিশ্বকাপে বাংলাদেশকে ফেভারিট ধরছেন। পাকিস্তানের বিপক্ষে ম্যাচ পরবর্তী সংবাদ সম্মেলনে তিনি বলেন, ‘আগামী বিশ্বকাপে সাকিব, তামিম, মুশফিক, রিয়াদ বেঁচে থাকবে ইনশাআল্লাহ, সুস্থ থাকবে। তাদের যেন কোনো ইনজুরি না হয়, চারজন যেন দলের সঙ্গে থাকে, বাকিরা যেন ফর্মে থেকে টুর্নামেন্টে যেতে পারে। যেহেতু ভারতে খেলা… বলব না বিশ্বকাপ জেতার কথা, এটা ভাগ্যের ব্যাপার। তবে ভারতে খেলা হলে বাংলাদেশকে অবশ্যই ফেভারিট ধরতে হবে।’ মাশরাফির মতো টাইগার সমর্থকদেরও এটাই প্রত্যাশা- ইংল্যান্ডে হয়নি, ভারতে যেন হয়।

সমকাল

print

LEAVE A REPLY