লিবিয়ার উপকূল থেকে ৬২ মৃতদেহ উদ্ধার, ভাসছে আরও লাশ

লিবিয়া থেকে ইউরোপে যাওয়ার পথে ভূমধ্যসাগরে নৌকাডুবিতে নিহত অন্তত ৬২ জনের মৃতদেহ উদ্ধার করা হয়েছে। শুক্রবার লিবিয়ার রেড ক্রিসেন্ট এ তথ্য জানিয়েছে। তারা বলেছে, উদ্ধারকর্মীরা বৃহস্পতিরার বিকেল থেকে উদ্ধার তৎপরতা চালাচ্ছে।

রেড ক্রিসেন্টের প্রধান আব্দুল মোনেইম আবু সেবেই বলেছেন, সাগরে এখনও মৃতদেহ ভেসে বেড়াচ্ছে। এ কারণে বলা যাচ্ছে না নৌকাডুবিতে ঠিক কত জন প্রাণ হারিয়েছে। নৌকাডুবির পর অন্তত ১৪৫ জন শরণার্থীকে জীবিত উদ্ধার করে লিবিয়ার কোস্টগার্ড ও জেলেরা।স্থানীয় সূত্রগুলো বলছে, লিবিয়ার বন্দর শহর খোমস থেকে প্রায় ৪০০ যাত্রী নিয়ে তিনটি নৌকা ভূমধ্যসাগরে যাত্রা শুরু করেছিল। উদ্ধার হওয়া যাত্রীদের কাছ থেকে এ তথ্য পাওয়া গেছে। এ তথ্য সঠিক হলে সাগরে দুই শতাধিক মানুষ মারা গেছে।লিবিয়ায় যুদ্ধাবস্থা থেকে বাঁচতে ইউরোপে যাওয়ার সময় ভূমধ্যসাগরে ডুবে এর আগেও মারা গেছেন বহু মানুষ। এ বছর এটিই ভূমধ্যসাগরে শরণার্থী নৌকাডুবিতে সবচেয়ে বেশি মানুষের মৃত্যুর ঘটনা বলে মনে করা হচ্ছে।চলতি বছরের প্রথম চারমাসে ভূমধ্যসাগরের একই রুটে প্রায় ১৬৪ জন শরণার্থীর মৃত্যু হয়েছে। গত মে মাসে তিউনিসিয়া উপকূলে শরণার্থী নৌকা উল্টে অন্তত ৬৫ জন নিহত হয়।লিবিয়া থেকে শরণার্থীরা ইউরোপে পাড়ি দিতে গিয়ে প্রতি বছরই এমন দুর্ঘটনার শিকার হলেও এই প্রবণতা কমছে না। বিশেষজ্ঞরা এ ধরনের অনিরাপদ যাত্রা থেকে বিরত থাকতে মানুষকে পরামর্শ দিয়ে থাকেন।
print

LEAVE A REPLY