৪ গরু ব্যবসায়ীর ২০ লাখ টাকা লুটে নিলো প্রতারক চক্র

অজ্ঞান পার্টির খপ্পরে পড়ে গরু বিক্রির সব টাকা হারালেন চার ব্যবসায়ী। টাঙ্গাইলের মির্জাপুরে অবস্থিত কুমুদিনী হাসপাতালে চিকিৎসাধীন রয়েছেন। তাদের মধ্যে তিনজনের অবস্থা আশঙ্কাজনক বলে জানিয়েছে হাসপাতাল কর্তৃপক্ষ। রবিবার ঢাকা-টাঙ্গাইল মহাসড়কের টাঙ্গাইলের মির্জাপুরে গোড়াই হাইওয়ে থানা সংলগ্ন এলাকায় ঘটনা ঘটেছে।

চার গরু ব্যবসায়ী হলেন- জয়পুরহাট জেলার পাঁচবিবি উপজেলার মো. বাবু হোসেন (৩৭), মো. ইউনুছ মিয়া (২৮), মো. ওহাব মিয়া(৪০) এবং মো. আক্তার হোসেন (৪৫)।

গোড়াই হাইওয়ে থানা পুলিশ সূত্রে জানা গেছে, অজ্ঞান পার্টির খপ্পরে পরা গরু ব্যবসায়ীদের বাড়ি জয়পুরহাট জেলার পাঁচবিবি উপজেলায়। গরু বিক্রির জন্য তারা গাবতলী হাটে গিয়েছিল। রবিবার ঢাকার গাবতলী গরুর হাট থেকে একটি পিকআপ ভ্যানে ওই চার গরু ব্যবসায়ী জয়পুরহাট যাওয়ার জন্য উঠেন। পিকআপ ভ্যানে থাকা যাত্রী বেশে প্রতারক চক্র ও অজ্ঞান পার্টির কয়েকজন সদস্য কৌশলে তাদরে সঙ্গে সখ্যতা গড়ে তুলে বিস্কুটের সঙ্গে নেশা জাতীয় দ্রব্য মিশিয়ে চার জন গরু ব্যবসায়ীকে খাওয়ান। বিস্কুট খেয়ে আস্তে আস্তে তারা নিস্তেজ হয়ে পরে। সুযোগ মত প্রতারক চক্রের সদস্যরা তাদের সঙ্গে থাকা টাকা পয়সা হাতিয়ে নিয়ে ঢাকা-টাঙ্গাইল মহাসড়কের মির্জাপুর উপজেলার গোড়াই হাইওয়ে থানার একটু সামনে ফেলে চম্পট দেয়। প্রতারক চক্র তাদের সঙ্গে থাকা প্রায় ২০ রাখ টাকা হাতিয়ে নিয়ে চম্পট দেয় বলে গরু ব্যবসায়ীদের মধ্যে আক্তার হোসেন জানিয়েছেন।

এ ব্যাপারে গোড়াই হাইওয়ে থানার সেকেন্ড অফিসার মো. ফজলুর রহমান ফজলুর বলেন, ‘আহত গরু ব্যবসায়ীদের রাস্তার পাশ থেকে উদ্ধার করে কুমুদিনী হাসপাতালে ভর্তি করা হয়েছে। একজনের কাছ থেকে তিন লাখ ৫০ হাজার টাকা উদ্ধার করা হয়েছে।’

ইত্তেফাক

print

LEAVE A REPLY