সুইজারল্যান্ডের ইয়াংফ্রাউ ম্যারাথনে শিব শংকর

হাবিবুল্লাহ আল বাহার, জার্মানি থেকে: ৬৪ দেশের প্রায় ৪০০০ হাজার দৌড়বিদের সঙ্গে সুইজারল্যান্ডের ইন্টারলাকেনে অনুষ্ঠিত ইয়াংফ্রাউ ম্যারাথনে অংশগ্রহণ করেছেন জার্মানির মিউনিখ প্রবাসী বাংলাদেশি শিব শংকর পাল।

এটি তার ব্যক্তিগত ক্যারিয়ারের ১০৭ নম্বর আন্তর্জাতিক ম্যারাথনে অংশ নেয়া। ৭ সেপ্টেম্বর সুইজারল্যান্ডে অনুষ্ঠিত এটি ছিল ইয়াংফ্রাউ ম্যারাথনের ২৭ তম আসর।

ইয়াংফ্রাউ ম্যারাথনকে পৃথিবীর সুন্দরতম ম্যারাথন বলা হয়ে থাকে। সুইজারল্যান্ডের আল্পস পর্বতমালার একটি উচ্চতম পর্বত ইয়াংফ্রাউ যার উচ্চতা চার হাজার মিটারের অধিক। এছাড়াও ৯ মে নেপালের হিমালয় পাহাড়ে অনুষ্ঠিত পৃথিবীর কঠিনতম ম্যারাথন খ্যাত এভারেস্ট ম্যারাথনেও অংশগ্রহণ করেছিলেন জার্মানি প্রবাসী শিব শংকর পাল।

এর আগে, আন্তর্জাতিক এই দৌড়বিদ নভেম্বর মাসে নিউইয়র্কে ক্যারিয়ারের ১০০তম ম্যারাথনে অংশ নিয়েছিলেন। ৭ সেপ্টেম্বর সুইজারল্যান্ডের ইয়াংফ্রাউ ম্যারাথনে অংশগ্রহণের মধ্য দিয়ে ১০৭টি আন্তর্জাতিক ম্যারাথনে লাল-সবুজ পতাকা নিয়ে দৌড়ালেন জার্মানি প্রবাসী এই বাংলাদেশি।

৫৩ বছর বয়সী শিব শংকর পাল জার্মানির মিউনিখ শহরের একজন সফল ব্যবসায়ী হলেও তার অদম্য শখ বিশ্বের বড় বড় সকল ম্যারাথনে বাংলাদেশের লাল সবুজের পতাকা নিয়ে দৌড়ানো। তিনিই একমাত্র বাংলাদেশি যিনি আন্তর্জাতিক ম্যারাথনে শতাধিকবার অংশগ্রহণের বিরল দৃষ্টান্ত স্থাপন করেছেন।

শিব শংকর পাল জানান, ম্যারাথনের মাধ্যমে বিশ্বমঞ্চে বাংলাদেশকে পরিচিত করানোই তার প্রধান লক্ষ্য। কঠোর পরিশ্রম এবং স্বপ্নই তাকে এ পর্যায়ে নিয়ে এসেছে।

INTERLAKEN, 7SEP19 – Starterlebnis pur: Die Laeuferinnen und Laeufer bewegen sich nach dem Startschuss durch Interlaken anlaesslich des 27. Jungfrau-Marathon am 7. September 2019 in Interlaken.
Impression of the 27th Jungfrau Marathon in Interlaken, Switzerland, September 7, 2019.
swiss-image.ch/Photo Remy Steinegger

শিব শংকর পাল ১৯৮৯ সালে জার্মানি পাড়ি জমান। ১৯৯৯ সালে জার্মানির মিউনিখে পাল ইলেক্ট্রো নামে ব্যবসা প্রতিষ্ঠান গড়ে তোলেন। ২০১৭ সালে জার্মানির মিউনিখ শহর কর্তৃপক্ষ পাঁচজন সফল ব্যবসায়ীকে বিশেষ পুরস্কারে ভূষিত করে। সে বছর পুরস্কার প্রাপ্ত পাঁচজন সফল ব্যবসায়ীর একজন বাংলাদেশি শিব শংকর পাল।

জার্মানি প্রবাসী সফল এই দৌড়বিদ এবং ব্যবসায়ী জার্মানির মিউনিখে স্ত্রী শিখা শংকর পাল, দুই ছেলে ম্যাক্সিমিলান ও দিব্য আর মেয়ে ত্রয়ীকে নিয়ে বসবাস করেন।

print

LEAVE A REPLY