রাব্বানীর ‘প্রটোকল’-এ না যাওয়ায় শিক্ষার্থীদের রুমে তালা

বাংলাদেশ ছাত্রলীগের সাধারণ সম্পাদক গোলাম রাব্বানীর প্রটোকল প্রোগ্রামে না যাওয়ায় ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয়ের মাস্টারদা সূর্যসেন হলের শিক্ষার্থীদের রুমে তালা দেয়ার অভিযোগ উঠেছে। রাব্বানীকে প্রটোকল দিতে তাদের ডাকা হয়েছিল।

সূর্যসেন হল শাখা ছাত্রলীগের যুগ্ম সাধারণ সম্পাদক সৈয়দ শরীফুল আলম শপুর নির্দেশে রুমে তালা দেয়া হয় বলে জানা গেছে। তিনি ছাত্রলীগের সাধারণ সম্পাদক গোলাম রাব্বানীর অনুসারী এবং হল শাখা ছাত্রলীগের সভাপতি প্রার্থী।
রোববার (৮ সেপ্টেম্বর) রাতে ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয়ের মাস্টারদা সূর্যসেন হলে এ ঘটনা ঘটে।

বিশ্ববিদ্যালয় সূত্রে জানা যায়, রোববার সকালে মধুর ক্যান্টিনে ছাত্রলীগের সাধারণ সম্পাদক গোলাম রাব্বানীকে প্রটোকল দেয়ার জন্য রাব্বানীর অনুসারীদের দখলকৃত রুমের শিক্ষার্থীদের অতিথিকক্ষে (গেস্টরুম ) ডাকা হয়। তবে তাদের ডাকে সাড়া না দিয়ে দ্বিতীয় বর্ষের অধিকাংশ শিক্ষার্থীই অতিথিকক্ষে যাননি। এরপর রাতে রাব্বানীর অনুসারীদের নিয়মিত অতিথিকক্ষ সভায় যারা ‘প্রটোকল’ প্রোগ্রামে যায়নি তাদেরকে ডাকা হয়। এতেও প্রোগ্রামে না যাওয়া শিক্ষার্থীদের কেউ আসেনি। এজন্য ক্ষিপ্ত হয়ে হল শাখা ছাত্রলীগের যুগ্ম সাধারণ সম্পাদক সৈয়দ শরিফুল আলম শপু তাদের রুমে তালা দেয়ার জন্য হল ছাত্রলীগের সহ-সম্পাদক রাকিব মুন্সিকে পাঠান। শপুর কথা অনুযায়ী রাকিব মুন্সি ২৪৮, ২৩৭, ৬২৬(ক), ৪০১(ক) নম্বর রুমগুলোতে তালা দেন।

এ বিষয়ে নাম প্রকাশ না করার শর্তে ভুক্তভোগী এক শিক্ষার্থী বলেন, ‘অন্য গ্রুপে আমাদের ইয়ারের (সেকেন্ড ইয়ার) বন্ধুরা অনেক ভালো আছে। কিন্তু আমরা এখানে দুইজনের রুমে ১০ জন থাকি। আবার আমাদের অনেক প্রোগ্রাম করতে হয়। এজন্য আমরা না রুমে ভালো করে থাকতে পারি, না নিজের একাডেমিক পড়া পড়তে পারি।’

তবে তাদের এ অভিযোগ অস্বীকার করে সৈয়দ শরিফুল আলম শপু বলেন, ‘ছেলেরা রুমে বিশৃঙ্খলা করতেছিল, তাই তাদের থামানোর জন্য ওদের সিনিয়ররা তাদের রুমে তালা দেয়। তারপর আবার দশ মিনিট পর আমি তাদের তালা খুলে দিতে বলি।’

এ বিষয়ে জানতে চাইলে সূর্যসেন হলের প্রাধ্যক্ষ অধ্যাপক মো. মকবুল হোসেন ভূঁইয়া কোনো মন্তব্য করেননি। পরে ছাত্রলীগের সাধারণ সম্পাদক গোলাম রাব্বানীর সঙ্গে যোগাযোগের চেষ্টা করা হলে তার ফোন বন্ধ পাওয়া যায়।

উৎসঃ jagonews24

print

LEAVE A REPLY