রাতে আটক, ভোরে ‘বন্দুকযুদ্ধে’ নিহত

নারায়ণগঞ্জে র‌্যাবের সঙ্গে ‘বন্দুকযুদ্ধে’ শীর্ষ সন্ত্রাসী তুহিন ওরফে চাপাতি তুহিন নিহত হয়েছেন। বুধবার ভোরে সদর উপজেলার সৈয়দপুর এলাকায় এ ঘটনা ঘটে। নিহত তুহিন দেওভোগ শান্তিনগর এলাকার কাওসার হোসেনের ছেলে।

র‌্যাব বলছে, তুহিনের বিরুদ্ধে হত্যা, মাদক ও চাঁদাবাজিসহ চারটি মামলা রয়েছে। ঘটনাস্থলে তল্লাশি চালিয়ে একটি বিদেশি পিস্তল, একটি ম্যাগাজিন ও তিন রাউন্ড গুলি উদ্ধার করা হয়েছে।

আদমজী র‌্যাব-১১ এর ইনচার্জ এএসপি মশিউর রহমান জানান, মঙ্গলবার রাতে কুমিল্লার দেবিদ্বার থেকে তুহিনকে আটক করা হয়। তার দেয়া তথ্যমতে অস্ত্রের সন্ধানে ভোররাতে শহরের সৈয়দপুর এলাকায় অস্ত্র ও মাদক উদ্ধার যায় র‌্যাব। এ সময় আগে থেকে ওঁৎ পেতে থাকা তুহিনের সহযোগীরা তাকে ছাড়িয়ে নিতে র‌্যাবকে লক্ষ্য করে গুলি ছোড়ে। র‌্যাবও পাল্টা গুলি ছুড়লে দুই পক্ষের গোলাগুলিতে গুলিবিদ্ধ হয়ে গুরুতর আহত হন তুহিন। পরে আহত অবস্থায় তাকে উদ্ধার করে নারায়ণগঞ্জ জেনারেল হাসপাতালে নিয়ে গেলে কর্তব্যরত চিকিৎসক মৃত ঘোষণা করেন।

তিনি আরও জানান, ঘটনাস্থলে তল্লাশি চালিয়ে একটি বিদেশি পিস্তল, একটি ম্যাগজিন ও তিন রাউন্ড গুলি উদ্ধার করেছে র‌্যাব। তুহিনের বিরুদ্ধে হত্যা, মাদক ও চাঁদাবাজিসহ চারটি মামলা রয়েছে। এর আগে রাবের সঙ্গে ‘বন্দুকযুদ্ধে’ নিহত হন হাসান নামের এক সন্ত্রাসী। তুহিন ওই হাসান বাহিনীর সেকেন্ড ইন কমান্ড ছিল।

উৎসঃ jagonews24

print

LEAVE A REPLY