শওকত মাহমুদ-বাবুসহ বিএনপির ১৪ নেতার জামিন

সুপ্রিমকোর্ট এলাকায় পুলিশের সঙ্গে বিএনপি নেতাকর্মীদের সংঘর্ষের ঘটনায় করা মামলায় দলটির ১৪ নেতাকে ৮ সপ্তাহের আগাম জামিন দিয়েছেন হাইকোর্ট। এই সময়ের মধ্যে তাদের নিম্ন আদালতে আত্মসমর্পণ করতে বলা হয়েছে।

বুধবার বিচারপতি জাহাঙ্গীর হোসেন ও বিচারপতি মো. রিয়াজ উদ্দিন খানের হাইকোর্ট বেঞ্চ তাদের জামিন দেন।

জামিন পাওয়া নেতারা হলেন- বিএনপির ভাইস চেয়ারম্যান ও সাংবাদিক নেতা শওকত মাহমুদ, স্বেচ্ছাসেবক দলের সভাপতি শফিউল বারী বাবু, বাংলাদেশ জাতীয় দলের চেয়ারম্যান সৈয়দ এহসানুল হুদা, ছাত্রদলের সভাপতি ফজলুর রহমান খোকন, সাধারণ সম্পাদক ইকবাল হোসেন শ্যামলসহ ১৪ জন।

আদালতে জামিন আবেদনের পক্ষে শুনানি করেন সুপ্রিমকোর্টের সিনিয়র আইনজীবী খন্দকার মাহবুব হোসেন, এজে মোহাম্মদ আলী, সঙ্গে ছিলেন বিএনপির আইনবিষয়ক সম্পাদক ব্যারিস্টার কায়সার কামাল, সালমা সুলতানা, মাসুদ রানা, ফাইয়াজ জীবরান, গোলাম আক্তার জাকির ও মাকসুদুল ইসলাম।

এর আগে গত ২৮ নভেম্বর এ মামলায় বিএনপির মহাসচিব মির্জা ফখরুল ইসলাম আলমগীরসহ চার নেতার জামিন মঞ্জুর করেন আদালত।

এ মামলায় ইতোমধ্যে গ্রেফতার হয়েছেন বিএনপি ভাইস চেয়ারম্যান হাফিজ উদ্দিন আহমেদ ও যুগ্ম মহাসচিব খায়রুল কবির খোকন।

উল্লেখ্য, ২৬ নভেম্বর দুপুরে জাতীয়তাবাদী মুক্তিযুদ্ধের প্রজন্মের ব্যানারে খালেদা জিয়ার মুক্তির দাবিতে সুপ্রিমকোর্টের সামনের রাস্তায় অবস্থান নেন বিএনপি নেতাকর্মীরা। এর পর পুলিশ তাদের সরিয়ে দিতে লাঠিচার্জ ও টিয়ারশেল নিক্ষেপ করে। পুলিশের ধাওয়ায় নেতাকর্মীরা পালানোর সময় রাস্তায় বেশ কিছু গাড়ি ভাঙচুর করেন।

ঘটনার রাতে বিএনপি মহাসচিব মির্জা ফখরুল ইসলাম আলমগীরসহ ৫০০ নেতাকর্মীর বিরুদ্ধে শাহবাগ থানায় পুলিশ বাদী হয়ে মামলা করে।

print

LEAVE A REPLY