জোর করেই পর্ন ভিডিও দেখাতেন গণেশ, নারী সহকর্মীর বিস্ফোরক তথ্য

কোরিওগ্রাফার গণেশ আচার্যের বিরুদ্ধে ফের #মিটু অভিযোগ উঠেছে। এবার তার বিরুদ্ধে সরব হলেন বলিউডের এক নারী কোরিওগ্রাফার। দিব্যা কোটিয়ান নামে ওই কোরিওগ্রাফার গণেশের বিরুদ্ধে কর্মক্ষেত্রে হেনস্থা এবং জোর করে পর্ন ভিডিও দেখানোর অভিযোগ করেছেন। এ ঘটনায় গতকাল সোমবার মুম্বাইয়ের আম্বোলি থানায় একটি মামলাও দায়ের করেছেন তিনি।

ভারতের সংবাদমাধ্যম জি নিউজ, আনন্দবাজার পত্রিকাসহ একাধিক সংবাদমাধ্যম জানিয়েছে, বেশ কয়েকটি সিনেমায় গণেশ আচার্যের সঙ্গে সহকারী কোরিওগ্রাফার হিসেবে কাজ করেছেন দিব্যা। যেসব সিনেমায় তার সহকারী কোরিওগ্রাফার হিসেবে কাজ করেছেন তিনি, সেখান থেকে পাওয়া টাকা থেকে নাকি ভাগ চাইতেন গণেশ। শুধু তাই নয়, গণেশ আচার্যের সঙ্গে কাজের সূত্রে যখনই তিনি দেখা করতেন, তখন তাকে জোর করে পর্ন ভিডিও দেখতে বাধ্য করতেন বলিউডে ‘মাস্টারজি’ নামে পরিচিত জনপ্রিয় এই কোরিওগ্রাফার।

দিব্যার অভিযোগ, যখন থেকে ‘ভারতীয় ফিল্ম এবং টেলিভিশন কোরিওগ্রাফার অ্যাসোসিয়েশন’-এর সাধারণ সম্পাদক পদে গণেশ আসীন হয়েছেন তখন থেকেই তাকে নানাভাবে হেনস্থা করে আসছেন তিনি।

ওই নৃত্যশিল্পী জানান, প্রায়শই অফিসে ডেকে জোর করে অশালীন ভিডিও দেখতে বাধ্য করতেন ওই সিনিয়র কোরিওগ্রাফার। এ নিয়ে আপত্তি জানালে গণেশের সঙ্গে তার তর্ককতর্কি হয়। সে জন্যই কিছুদিন আগে এক লাখ টাকার মেম্বারশিপ চার্জ দেওয়ার পরেও ওই অ্যাসোসিয়েশন থেকে দিব্যার সদস্য পদ বাতিল করে দেন ‘সিম্বা’র কোরিওগ্রাফার গণেশ।

পুলিশের কাছে ওই নারী কোরিওগ্রাফারের অভিযোগ, ‘গণেশের সঙ্গে সম্পর্ক খারাপ হওয়ায় অন্যান্য কোরিওগ্রাফারও আমাকে কাজ দিতে অস্বীকার করতেন। সবার একই কথা ছিল, গণেশের সঙ্গে সব ঠিক করে নাও।’

পুলিশ সূত্রে জানা গেছে, গত ২৬ জানুয়ারি প্রজাতন্ত্র দিবসের দিন এক অনুষ্ঠানে গণেশের সঙ্গে দিব্যার দেখা হলে দিব্যা গণেশের কাছে সদস্যপদ বাতিল করে দেওয়ার কারণ জানতে চান। আর তাতেই প্রচণ্ড উত্তেজিত হয়ে পড়েন গণেশ। উপস্থিত আরও দুই নারী কোরিওগ্রাফারকে ডেকে দিব্যাকে অনুষ্ঠান থেকে বের করে দেওয়ারও নির্দেশ দেন তিনি। জয়শ্রী কেলকার এবং প্রীতি ল্যাড নামে দুই কোরিওগ্রাফার সেখান থেকে মারতে মারতে বার করে দেন দিব্যাকে।

এর পরেই থানায় অভিযোগ দায়ের করেন দিব্যা। মহারাষ্ট্র নারী কমিশনের কাছেও পুরো ঘটনা জানিয়েছেন ওই কোরিওগ্রাফার।

গণেশের বিরুদ্ধে #মিটু অভিযোগ অবশ্য নতুন নয়। এর আগে বাঙালি অভিনেত্রী তনুশ্রী দত্তও তার বিরুদ্ধে শ্লীলতাহানির অভিযোগ এনেছিলেন। সে সময় গণেশকে বয়কটের ডাকও দিয়েছিলেন এই অভিনেত্রী।

উৎসঃ   amadershomoy
print

LEAVE A REPLY