তুরস্কে ১৩৫ বাংলাদেশি ও পাকিস্তানি আটক

তুরস্কের সাবেক রাজধানী ইস্তাম্বুলে বাংলাদেশ ও পাকিস্তানের ১৩৫ নাগরিককে আটক করেছে দেশটির নিরাপত্তা বাহিনী।

তুরস্কের রাষ্ট্রীয় বার্তা সংস্থা আনাদুলে এজেন্সি জানায়, গত বুধবার ইস্তাম্বুলের ফাতিহ শহর থেকে এসব অভিবাসীকে আটক করা হয়। এরা সবাই তুরস্কে অবৈধ অভিবাসী।

আটকদের সবাইকে দেশটির অভিবাসন আইন অনুযায়ী প্রাদেশিক অভিবাসন দফতরে পাঠানো হয়েছে।

সম্প্রতি তুরস্কে অবৈধ অনুপ্রবেশ ঠেকাতে ও মানবপাচার রোধে নিরাপত্তা জোড়দারসহ বিভিন্ন শহরে অভিযান চলছে।

এসব অভিযানে গত এক সপ্তাহে অন্তত এক হাজার ৬০০ অবৈধ অভিবাসীকে আটক করেছে তুরস্কের নিরাপত্তা বাহিনী।

এছাড়া গ্রিস ও বুলগেরিয়ার সীমান্তবর্তী উত্তর-পশ্চিম এডিরনে, কির্কলারেলি এবং টেকিরডাগ প্রদেশে একাধিক অভিযানে ৯১৩ জন অভিবাসীকে আটক করা হয় বলে এক প্রতিবেদনে জানিয়েছে আনাদোলু।

গ্রিস হয়ে ইউরোপ যাওয়ার চেষ্টা করায় পশ্চিমাঞ্চলীয় কানাক্কালে, বালিকেসির, আয়িন এবং ইজমিরে ৫১২ অভিবাসীকে আটক করে তুর্কি কোস্টগার্ড এবং নিরাপত্তা বাহিনী।

এসব আটক অভিবাসীরা সিরিয়ান, ইরাকি, ভারতীয়, পাকিস্তানি, আফগান, তিউনিসিয়ান, মরোক্কান, তুর্কমেনি, মিশরীয়, আলজেরিয়ান, সোমালি, ঘানায়ান, ইয়েমেনি, কঙ্গোলিজ, ইরিত্রিয়ান ও নাইজেরিয়ার নাগরিক।

দেশটির স্বরাষ্ট্র মন্ত্রণালয় জানিয়েছে, ২০১৯ সালে তুরস্কে চার লাখ ৫৪ হাজার ৬৬২ জন অবৈধ অভিবাসী আটক হয়েছেন। ২০১৮ তে এর সংখ্যা ছিল ২ লাখ ৬৮ হাজার, ২০১৭ সালে এল লাখ ৭৫ হাজার।

২০১৯ সালে কেবল ভূমধ্যসাগরে ভাসমান অবস্থাতেই প্রায় ৬০ হাজার অবৈধ অভিবাসী উদ্ধার করে তুরস্ক পুলিশ।

print

LEAVE A REPLY