একটি এলইডি বাতির দাম ২ লাখ ৩৫ হাজার

আড়াই কিলোমিটার নতুন সড়ক নির্মানের একটি এলইডি লাইটের দাম ধরা হয়েছে দুই লাখ ৩৫ হহাজার টাকা। সড়ক আলোকিত করতে বাতির এমন অস্বাভিক মূল্যে আপত্তি জানিয়েছে পরিকল্পনা কমিশন। রচট্টগ্রাম উন্নয়ন কর্তৃপক্ষের (সিডিএ) ‘নর্থ-সাউথ সড়ক নির্মাণ’ প্রকল্পে লাইটের এএমন অস্বাভাবিক মূল্য ধরা পড়েছে।

উন্নয়ন প্রকল্প প্রস্তাবের (ডিপিপি) তথ্য অনুযায়ী, আড়াই কিলোমিটার সড়কটিতে ৩৫০টি এলইডি বাতি স্থাপন বাবদ খরচ হবে সোয়া ৮ কোটি টাকা। প্রতিটি বাতির দাম ধরা হয় ২ লাখ ৩৫ হাজার টাকা। প্রতিটি বৈদ্যুতিক খুঁটি স্থাপনের খরচ ধরা হয়েছে ৯০ হাজার টাকা। ২০টি খুঁটি সরানোর জন্য খরচ ধরা হয়েছে ৮ লাখ টাকা। আর স্থানান্তরে খরচ হবে আরও ৪০ হাজার টাকা করে। মোট খরচ ১ কোটি ৯৮ লাখ টাকা।

একই সংস্থার আরেকটি প্রকল্পে সড়কবাতি কেনা হচ্ছে সাড়ে ১১ হাজার টাকা করে।

নতুন প্রকল্পে এত বেশি দাম ধরা হয়েছে কেন? এ প্রশ্নের জবাবে প্রকল্প পরিচালক মোহাম্মদ হাসান গণমাধ্যমকে বলেন, বাতির দামটা তাঁর কাছেও বেশি মনে হয়েছে। তবে তাঁরা ইচ্ছামতো দর দেননি। সিডিএর এলিভেটেড এক্সপ্রেসওয়ের অনুমোদিত দর অনুসরণ করে ডিপিপি তৈরি করেছেন। তিনি বলেন, বাতির দামের ব্যাপারে পরিকল্পনা কমিশনের পক্ষ থেকে জানতে চেয়েছিল। তাঁরা এর ব্যাখ্যা দিয়েছেন। এখন তা সংশোধন করা হচ্ছে।

তবে এলিভেটেড এক্সপ্রেসওয়ের ডিপিপি পর্যালোচনা করে দেখা গেছে, বৈদ্যুতিক তার, খুঁটি, সোলার সিস্টেমসহ সব মিলিয়ে প্রতিটি বাতির দাম ধরা হয়েছে ২ লাখ ৩৫ হাজার টাকা। কিন্তু নতুন সড়ক নির্মাণ প্রকল্পে কেবল বাতিরই এই দাম ধরা হয়েছে। তার ও খুঁটির খরচ আলাদা করে ধরা হয়েছে।

print

LEAVE A REPLY