পশ্চিমবঙ্গে পাওয়া যাচ্ছে ‘করোনার ওষুধ’, গোমূত্রের লিটার ৫০০ রুপি; গোবরের কেজি ৪০০!

করোনাভাইরাসের (কোভিড-১৯) প্রাদুর্ভাব ঠেকাতে ইউরোপের দেশ ইতালিতে জরুরি অবস্থা জারি করা হয়েছে। এই অবস্থায় আইন অমান্য করায় ৯ জন বাংলাদেশিকে আটক করেছে সেদেশের পুলিশ।

স্থানীয় সময় রোববার সন্ধ্যায় ইতালির নাপোলির সান জুসেপ্পে ভেসুভিয়ানো এলাকা থেকে তাদের আটক করা হয়। নাপোলির মেয়র ভিনসেনজো কাতাপানো সিনডাকো এ তথ্য নিশ্চিত করেন।

জানা গেছে, করোনার মহামারি ঠেকাতে ইতালির সব শহরের প্রবেশদ্বারে সেনা মোতায়েন করা হয়েছে। এক শহর থেকে অন্য শহরে কাউকে প্রবেশ করতে দেয়া হচ্ছে না। এছাড়া মাইকিং করে ঘর থেকে বের না হওয়ার জনগণকে আহ্বান জানানো হচ্ছে।

এই আইন অমান্যকারীদের ২০৬ ইউরো জরিমানা এবং একইসঙ্গে তিন মাস থেকে ২১ বছর পর্যন্ত কারাদণ্ডের বিধান রাখা হয়েছে। এই আইন দেশিটির নাগরিকসহ প্রবাসীদের জন্যও প্রযোজ্য।

স্থানীয় পৌর প্রশাসন সূত্রে জানা গেছে, আটক বাংলাদেশিরা জরুরি প্রয়োজন ও খাদ্যসামগ্রী কিনতে বাইরে বের হয়েছিলেন। তবে তারা এ ব্যাপারে পুলিশের কাছে কোনো প্রমাণ দিতে পারেননি।

সরকারি নির্দেশনা অনুযায়ী, জরুরি অবস্থার আওতায় কোনো ব্যক্তিকে বাইরে বের হতে হলে সুনির্দিষ্ট কারণ দেখিয়ে সংশ্লিষ্ট কর্তৃপক্ষের অনুমোদন নিতে হবে। কিন্তু যারা আটক হয়েছেন তারা কোনো অনুমোদনপত্র বা কারণ দেখাতে পারেননি।

এছাড়া তারা রাষ্ট্রীয়ভাবে নির্দেশিত একে-অপর থেকে এক মিটার দূরত্ব বজায় রাখেননি।

দেশটির পুলিশ জানায়, সরকারি আইন লঙ্ঘন করায় আটক ৯ বাংলাদেশিকে জনপ্রতি ২০৬ ইউরো জরিমানা করা হয়েছে। তারা করোনাভাইরাসে আক্রান্ত কি-না, তা যাচাইয়ের জন্য ১৪ দিন হাসপাতালে কোয়ারেন্টাইনে রাখা হয়েছে।

নাপোলির মেয়র ভিনসেনজো কাতাপানো সিনডাকো ফেসবুক পেজে নয় বাংলাদেশিকে আটকের খবর জানিয়ে তিনি তাদের তিরস্কার করেন।

এ বিষয়ে ইতালিতে অবস্থিত বাংলাদেশ দূতাবাসের কোনো বক্তব্য পাওয়া যায়নি।

প্রসঙ্গত, করোনাভাইরাসে আক্রান্ত ইতালিতে গত ২৪ ঘণ্টায় ৩৬৮ জনের মৃত্যু হয়েছে। এতে দেশটিতে মৃতের সংখ্যা বেড়ে দাঁড়িয়েছে ১ হাজার ৮০৯ জনে।

insaf24

print

LEAVE A REPLY