ঝালকাঠিতে নির্বাচনী সহিংসতা বাড়ছে

sohingsotaঝালকাঠির নলছিটিতে আসন্ন ইউনিয়ন পরিষদ নির্বাচনকে কেন্দ্র করে দিন দিন বেড়ে চলেছে নির্বাচনী সংহিংসতা। এরই ধারাবাহিকতায় জেলার নলছিটি উপজেলার মোল্লারহাটে আ’লীগ মনোনীত চেয়ারম্যান প্রার্থী মো. কবির হোসেন হাওলাদার তার ভাই দেলোয়ার ও সহযোগীদের হামলায় ওই ইউনিয়নের সদস্য প্রার্থী সাবেক ছাত্রলীগ সভাপতি ও যুবলীগের বর্তমান যুগ্ম সম্পাদক বেল্লাল হোসেন, স্থানীয় চৌকিদার লিটন ও আ’লীগ নেতা মিজানুর রহমানকে পিটিয়ে রক্তাক্ত জখম করেছে বলে অভিযোগ পাওয়া গেছে। শুক্রবার রাত ৯টার দিকে মোল্লারহাট চৌরঙ্গি মোড়ে এ ঘটনা ঘটে।
আহত বেল্লাল এখন বরিশাল শের-ই-বাংলা মেডিকেল কলেজ হাসপাতালে চিকিৎসাধীন আছেন। চেয়ারম্যান প্রার্থী কবিরের ঘুষিতে দুটি দাত পড়ে যাওয়া লিটন চৌকিদার ও আহত মিজানুর রহমান বাড়িতে চিকিৎসা নিচ্ছেন।
ঘটনার সত্যতা স্বীকার করে মোল্লারহাট পুলিশ ফাড়ির এসআই জাকির হোসেন বলেন,‘শুনতে পেয়ে ঘটনাস্থলে গিয়ে পরিস্থিতি নিয়ন্ত্রণে এনেছি। তবে এখন পর্যন্ত কোন লিখিত অভিযোগ পাইনি। চৌকিদারকে মারার বিষয়টি উর্ধ্বতন কর্তৃপক্ষকে জানানো হয়েছে।’
দলীয় প্রতীকে নির্বাচনের বিষয়টি চুড়ান্ত হওয়ার পর থেকেই এলাকায় না থেকে ও দলীয় পদ-পদবী না থাকলেও অদৃশ্য শক্তি বলে আ’লীগের মনোনয়ন পেয়ে বিনা প্রতিদ্বন্দ্বিতা চেয়ারম্যান নির্বাচিত হতে মরিয়া হয়ে ওঠেন বিগত নির্বাচনে বিএনপি প্রার্থীর কাছে হেরে যাওয়া কবির হোসেন। সেই লক্ষকে সামনে রেখে এলাকায় গড়ে তোলেন একটি সন্ত্রাসী বাহিনী। নির্বাচনের দিন ঘনিয়ে এলে দলীয় মনোনয়নের বিষয়টি চুড়ান্ত করতে কবির হোসেন গত ২৯ জানুয়ারি তার সন্ত্রসী বাহিনী দিয়ে বর্বরোচিত হামলা চালিয়ে পঙ্গু করে দেয় দলীয় মনোনয়নের অন্যতম দাবীদার ইউনিয়ন আ’লীগের সাধারণ সম্পাদক সোহেল রানাকে।
এরপর তফশিল ঘোষনার পরে ওই সন্ত্রাসী বাহিনী দিয়ে রিটার্ণিং অফিসারের কার্যালয়ে চেকপোষ্ট বসিয়ে অন্য প্রার্থীদের মনোনয়পত্র জমা দিতে দেননি। মনোনয়নপত্র জমাদানের শেষদিনে বিএনপি প্রার্থী আ. ছালাম হাওলাদারের মনোনয়নপত্র ছিনিয়ে নিয়ে ছিড়ে ফেলে তাকে লাঞ্ছিত করে কবির বাহিনী। পরে গত ৩ মার্চ প্রতিক বরাদ্দের দিন অন্য কোন প্রতিদ্বন্দ্বী প্রার্থী না থাকায় কবির হোসেনকে বিনা প্রতিদ্বন্দ্বিতায় নির্বাচিত ঘোষনা করেন উপজেলা নির্বাচন কর্মকর্তা মো. রফিকুল ইসলাম। কিন্ত বিএনপি দলীয় প্রার্থী আ. ছালাম হাইকোর্টের আদেশে গত ৯ মার্চ রির্টাণিং কর্মকর্তার কাছে মনোনয়নপত্র জমা দিয়ে নির্বাচনী প্রচার প্রচারণা শুরু করায় বেপরোয়া হয়ে ওঠেন আ’লীগ মনোনীত প্রার্থী মো. কবির হোসেন হাওলাদার। ওই দিনই কবির বাহিনী হুমকি দেয় তাদের হামলায় একমাস ঢাকার পঙ্গু হাসপাতালে চিকিৎসাধীন থেকে ১৪ দিনে ছুটিতে ৭ মার্চ বাড়িতে আসা সোহেল রানাকে। এ ব্যাপারে নলছিটি থানায় একটি সাধারণ ডায়েরি করেছে সেহেলের পরিবার(নম্বর-৩৩০,তারিখ-৯মার্চ ২০১৬ইং)।

print

LEAVE A REPLY