পেশি দুর্বল লাগে কেন

78-1-300x156আপনার কি পেশি দুর্বল লাগে বা পেশিতে অবসন্নতা বোধ হয়? অস্বাস্থ্যকর জীবন যাপন, ঘুমের অসুবিধা, দীর্ঘমেয়াদি অবসন্নতা, ব্যায়ামের অভাব ইত্যাদির কারণে পেশি অনেক সময় দুর্বল লাগে। প্রায়ই পেশিতে এমন সমস্যা হলে চিকিৎসকের পরামর্শ নিন।

স্বাস্থ্য বিষয়ক ওয়েবসাইট হেলদি ফুড টিম জানিয়েছে পেশি দুর্বল লাগার কিছু কারণের কথা।

১. সেডেন্টারি জীবনযাপন

নিয়মিত শারীরিক পরিশ্রম বা ব্যায়াম না করলে পেশি দুর্বল হয়ে পড়ে। সারাক্ষণ শুয়ে বসে থাকলেও কিন্তু অবসন্নতা ভর করে পেশিতে। পেশি দুর্বল মনে হলে চিকিৎসকের পরামর্শ নিয়ে ব্যায়াম শুরু করুন।

২. পটাশিয়াম ও সোডিয়াম কম গ্রহণ

পটাশিয়াম ও সোডিয়াম উভয়ই পেশির কার্যক্রম ঠিকঠাক রাখার জন্য জরুরি। পটাশিয়াম ও সোডিয়াম কম খেলেও পেশি দুর্বল লাগে। তাই খাদ্যতালিকায় পটাশিয়াম ও সোডিয়াম সমৃদ্ধ খাবার রাখতে হবে। তবে চিকিৎসকের পরামর্শ নিয়ে পটাশিয়াম ও সোডিয়াম গ্রহণের পরিমাণটা জেনে নিন।

৩. রক্তের সুগার কমে গেল অথবা হাইপোগ্লাইসেমিয়া হলে

ডায়াবেটিস হলে অনেক সময় রক্তের সুগার অনেক কমে গিয়ে হাইপোগ্লাইসেমিয়া হয়। এটি খুব জটিল সমস্যা। এমন  হলেও পেশি দুর্বল লাগে। এই সময় একটু মিষ্টি চকোলেট বা চিনি খান।

৪. ভালোভাবে ঘুম না হওয়া

ঘুম না ভালোভাবে না হলে বা ইনসোমনিয়ার সমস্যা থাকলে এটি পেশির ওপর প্রভাব ফেলে। তখন পেশি দুর্বল লাগে। ঘুম না হওয়ার কারণে পেশিতে দুর্বল বোধ হলে চিকিৎসকের পরামর্শ নিন। আর কীভাবে ঘুম ভালো করা যায় সে সম্বন্ধে জানুন।

৫. ভিটামিন বি১২-এর অভাব

শরীরে ভিটামিন বি১২-এর ঘাটতি হলেও কিন্তু পেশি দুর্বল লাগে। ভিটামিন বি১২ প্রয়োজন শক্তিশালী স্নায়ুর জন্য। ভিটামিন বি১২- এর চাহিদা পূরণে গরুর মাংস, মুরগির মাংস, ডিম, মাছ ইত্যাদি খান।

৬. রক্তস্বল্পতা

রক্তে লোহিত কনিকা কমে গেলে রক্তস্বল্পতা হয়। এতে পেশি দুর্বল লাগে। এমন হলে চিকিৎসকের পরামর্শ নিন। রক্তস্বল্পতা প্রতিরোধে আয়রণ সমৃদ্ধ খাবার খান। যেমন : কচু, কাচ কলা, বাদাম, মাংস ইত্যাদি।

৭. হাইপোথাইরয়েডিজম

আমাদের থাইরয়েড গ্রন্থি নিয়মিত হরমোন নিঃসরণ করে। থাইরয়েড হরমোন কম বের হলে তাকে হাইপোথাইরয়েডিজম বলে। এতে শরীর অবসন্ন লাগে ও পেশি দুর্বল বোধ হয়।

৮. দীর্ঘমেয়াদি অবসন্নতা

দীর্ঘমেয়াদি অবসন্নতা বা ক্রনিক ফ্যাটিক সিনড্রম হলে সারাক্ষণ ক্লান্তবোধ লাগে। এতে পেশি দুর্বলবোধ হয়। দীর্ঘমেয়াদি অবসন্নতা হলে বিষয়টিকে এড়িয়ে না গিয়ে চিকিৎসকের পরামর্শ নিন। – এন টিভি

print

LEAVE A REPLY