স্বরাষ্ট্রমন্ত্রীর নিষেধাজ্ঞা থার্টি ফার্স্টে

স্বরাষ্ট্রমন্ত্রী আসাদুজ্জামান খাঁন কামাল থার্টি ফার্স্ট নাইটের উৎসবকে ঘিরে যাতে কোনো প্রকার অপ্রীতিকর ঘটনা না ঘটে সে জন্য সন্ধ্যার পর রাজধানীর উন্মুক্ত স্থানে অনুষ্ঠান নিষিদ্ধ করেছেন।

খ্রিস্টীয় নববর্ষের প্রথম প্রহরে আনন্দ-উৎসব ঘিরে নিরাপত্তার অংশ হিসেবে  এই ব্যবস্থা গ্রহণ করা হয়েছে বলে জানানো হয়েছে।

সোমবার বিকেলে স্বরাষ্ট্র মন্ত্রণালয়ের সম্মেলনকক্ষে বড়দিন উদযাপন ও থার্টি ফাস্ট নাইটের আইনশৃঙ্খলা পরিস্থিতি নিয়ে আয়োজিতসভা শেষে সাংবাদিকদের এসব কথা বলেন তিনি।

বড় দিনের উৎসব ঘিরে ঢাকাসহ সারা দেশের গির্জাগুলোতে নিরাপত্তা জোরদারের জন্য পর্যাপ্ত ব্যবস্থা নেওয়া হবে উল্লেখ করে মন্ত্রী বলেন, ‘ঢাকার মিরপুর, কাকরাইল ও তেজগাঁওয়ের বড় তিনটি গির্জায় বিশেষ নজর রাখা হবে। সন্ধ্যা ৬টার পর উন্মুক্ত স্থানে অনুষ্ঠান করা যাবে না। কেউ ইনডোরে আনুষ্ঠান করতে চাইলে পুলিশকে জানাতে হবে। রাতে দেশের বারগুলোও বন্ধ থাকবে’।

মন্ত্রী বলেন, ‘বিগত বছরগুলোর মতো এবারো থার্টি ফার্স্ট নাইটে আতশবাজিও ফাঁটানো যাবে না, ওই রাতকে ঘিরে বিশেষ নিরাপত্তা ব্যবস্থা নেওয়া হয়েছে। কূটনৈতিক এলাকায়ও নিরাপত্তা বাড়ানো হবে’।

উন্মুক্ত স্থানে অনুষ্ঠানে নিষেধাজ্ঞার বিষয়ে সাংবাদিকের প্রশ্নের জবাবে স্বরাষ্ট্রমন্ত্রী বলেন, ‘আইনশৃঙ্খলা পরিস্থিতি নিয়ন্ত্রণ করতেই এই সতর্কতামূলক ব্যবস্থা’।

অনুষ্ঠানে অন্যদের মধ্যে বর্ডার গার্ড বাংলাদেশের (বিজিবি) মহাপরিচালক আবুল হোসেন, র্যা বের মহাপরিচালক বেনজির আহমেদ, ডিএমপি কমিশনার আছাদুজ্জামান মিয়া ও ফায়ার সার্ভিসের মহাপরিচালক মোহাম্মদ আলী হোসেন উপস্থিত ছিলেন।

print

LEAVE A REPLY