বরিশালে স্কুল প্রাঙ্গণে শিক্ষার্থীকে কুপিয়ে হত্যা

কোতোয়ালি থানার এসআই আব্দুল কুদ্দুস জানান, শনিবার সকাল ১০টার দিকে স্কুলসংলগ্ন পরেশ সাগর মাঠের এ ঘটনায় পুলিশ খুনিকে গ্রেপ্তারে অভিযান শুরু করেছে।

নিহত সাইদুর রহমান হৃদয় (১৫) পিরোজপুরের ভাণ্ডারিয়া এলাকার শাহিন গাজীর ছেলে।

নিহত সাইদুরের সহপাঠী আহত গোলাম সাফিন রাফি সাংবাদিকদের বলেন, স্কুলের পাশের মাঠে ফেলে হৃদয়কে কুপিয়ে ও পিটিয়ে আহত করে ১২-১২ জন অস্ত্রধারী।

“ঘটনা দেখে আমি ও কয়েকজন সেদিকে এগিয়ে গেলে তারা পালিয়ে যায়। গুরুতর আহত হৃদয়কে উদ্ধার করে রিকশায় করে হাসপাতালে নেওয়ার পথে তারা আমার ওপর পেছন থেকে হামলা করে।”

বরিশাল শের-ই বাংলা মেডিকেল কলেজ হাসপাতালের চিকিৎসক খালিদুর রহমান জানান, হাসপাতালে আনার আগেই সাইদুরের মৃত্যু হয়। তাকে কুপিয়ে জখম করা হয়েছিল।

“আর রাফির পিঠে একটি কোপের চিহ্ন দেখা গেছে। তাকে চিকিৎসা দেওয়া হচ্ছে।”

পুলিশ নগরীর বিভিন্ন স্থানে চেকপোস্ট বসিয়ে তল্লাশি শুরু করেছে জানিয়ে এসআই কুদ্দুস বলেন, খুনিকে ধরতে পুলিশ তৎপর রয়েছে।

এদিকে বহিরাগতরা প্রায়ই ক্যাম্পাসে ঢুকে ছাত্রীদের উত্ত্যক্ত করত বলে খবর পাওয়া গেছে।

বিদ্যালয়ের প্রধান শিক্ষিক পাপিয়া জেসমিন বলেন, “সীমানা প্রাচীর না থাকায় বহিরাগতরা প্রায়ই ক্যাম্পাসে ঢুকে পড়ত। বিষয়টি প্রশাসনকে জানানো হয়েছে।”

বিদ্যালয়টির কয়েকজন শিক্ষার্থী বিডিনিউজ টোয়েন্টিফোর ডটকমকে বলেন, পলিটেকনিক কলেজের কয়েকজন ছাত্র প্রায়ই বিদ্যালয় প্রাঙ্গণে এসে ছাত্রীদের উত্ত্যক্ত করত।

কদিন আগে হৃদয় এর প্রতিবাদ জানালে তার সঙ্গে তাদের তর্ক হয়। এর জেরে তারা হৃদয়ের ওপর হামলা করেছে বলে তাদের ধারণা।

print

LEAVE A REPLY