গরু জবাইয়ের শাস্তি যাবজ্জীবন, মোদীকে সারা বিশ্বের ধিক্কার

প্রধানমন্ত্রী নরেন্দ্র মোদি ও তার হিন্দুত্ববাদী দল বিজেপির প্রশ্রয়ে ভারতের গুজরাটে এবার গরু জবাইয়ের শাস্তি হিসেবে যাবজ্জীবন কারাদণ্ডের বিধান রেখে আইন পাশ করা হয়েছে।বিজেপির নেতৃত্বাধীন গুজরাট সরকারের বিধান সভা আজ শুক্রবার এ আইন পাশ করে।

ভারতের এনডিটিভি জানিয়েছে, ‘The Gujarat Animal Preservation Act of 1954’ নামে একটি আইন সংশোধন করে আগের সাত বছরের সাজাকে বাড়িয়ে যাবজ্জীবন করা হয়েছে। একই সাথে আগের জরিমানার পরিমাণ ১ লাখ থেকে এখন ৫ লাখ করা হয়েছে।
আইনে বলা হয়েছে, রাজ্যে সন্দেহজনক কাজে গরুকে এক স্থান থেকে অন্য স্থানে পরিবহনের জন্যও ১০ বছর কারাদণ্ড হতে পারে।
বিলটি পাস করার সময় বিরোধী দল কংগ্রেস বিধান সভা থেকে ওয়াক আউট করে চলে যায়।
আগামী বছর এই রাজ্যের নির্বাচন হবে। বিশেষজ্ঞরা মনে করছেন, সেই লক্ষ্যে হিন্দুত্ববাদের ধোয়া তুলে ভত পেতে এ ধরনের আইন প্রনয়ন করছে বিজেপি।

ভারতে ধর্ষণের মত গুরুত্বর অপরাধে ভারতে যাবজ্জীবন শাস্তির বিধান নেই।কিন্তু গরু জবাইয়ে যাবজ্জীবন শাস্তি নিয়ে শুধু ভারতে নয় সারা বিশ্বে সমালচনার ঝড় উঠেছে।ভারতে মোদী স্পষ্টত হিন্দুত্ববাদ অন্য ধর্মের লোকদের উপর চাপিয়ে দেয়ার চেষ্টা করছেন।ভারত নিজেকে সেকুলার দেশ দাবী করে সংখ্যাগরিষ্ঠদের ধর্ম সংখ্যা লঘুদের উপর চাপিয়ে দিচ্ছে বলা হয়েছে বিবিসির আজকের প্রতিবেদনে।

সামাজিক যোগাযোগ মাধ্যম গুলিতে সমালোচনার ঝড় বইছে। ‘আপনি গরুর মাংশ খাবেন কি খাবেন না,এটা আপনার ইচ্ছা।আপনি কাউকে খেতে বাধ্য করতে পারেন না এবার খেলে শাস্তিও দিতে পারেন না,বিশ্বের ৬০০ কোটীর অধিক মানুষ গরুর মাংশ খায়। সেখানে গরুর মাংশ খাওয়ার জন্য ভারতে যাবজ্জীবন শাস্তি দেয়া হচ্ছে,ভাবতে পারেন আমরা কোন যুগে ফিরে যাচ্ছি’ বিবিসিকে বলছিলেন দিল্লি বিশ্ব বিদ্যালয়ের একজন শিক্ষক।

ভারতের বিরোধী দলগুলিকে পরাস্ত করতে হিন্দুত্ববাদ কে হাতিয়ার হিসেবে বেছে নিয়েছে বিজেপি,মনে করছে কংগ্রেস।এই কৌশলে তারা দুর্দান্ত জয় ছিনিয়ে এনেছে উত্তর প্রদেশে।ভোটের রাজনীতিতে পিছিয়ে পড়তে পারে এই আশঙ্কায় কংগ্রেস এখনো জোড়ালো প্রতিবাদ করছেনা।

print

LEAVE A REPLY