ছাত্রদল নেতা নুরুল আলমকে হত্যায় ছাত্রশিবিরের নিন্দা

ঢাকা: ছাত্রদলের কেন্দ্রীয় সহসাধারণ সম্পাদক ও চট্টগ্রাম উত্তর জেলা ছাত্রদলের সাবেক সিনিয়র যুগ্মআহ্বায়ক নুরুল আলম নুরুকে আইনশৃঙ্খলা বাহিনীর পরিচয়ে তুলে নিয়ে নির্মমভাবে হত্যার তীব্র নিন্দা ও প্রতিবাদ জানিয়েছে ইসলামী ছাত্রশিবির।

শুক্রবার এক প্রতিবাদ বার্তায় শিবির সভাপতি ইয়াছিন আরাফাত ও সেক্রেটারি জেনারেল মোবারক হোসাইন বলেন, অবৈধ ক্ষমতাকে দীর্ঘায়িত করতেই পরিকল্পিতভাবে ছাত্রনেতাদের হত্যা করছে সরকার। কোনো কারণ ছাড়াই বুধবার রাত ১২টার দিকে চট্টগ্রামের চকবাজার থানাধীন চন্দনপুরার বাসা থেকে পরিবারের সদস্যদের সামনে থেকে ১০-১২ জন পুলিশ পরিচয়ে নুরুল আলম নুরুকে হ্যান্ডকাফ পরিয়ে নিয়ে যায়।

তারা বলেন, রাউজান নোয়াপাড়া পুলিশ ক্যাম্পের ইনচার্জ এসআই জাবেদের নেতৃত্বে পরিচালিত অভিযানে ২-৩ জন পোশাকধারী এবং ৮-৯ জন ছিল সাদা পোশাকের। পুলিশ প্রকাশ্যে গ্রেফতার করলেও পরে তা অস্বীকার করে। পরদিন কর্ণফুলি নদীর পাড়ে দুই হাত ও পা রশি দিয়ে বাঁধা ও মুখে কাপড় ঢোকানো অবস্থায় তার লাশ পাওয়া যায়। তার মাথায় গুলি ও সারা শরীরে জখমের চিহ্ন দেখা যায়। পুলিশ অত্যন্ত পরিকল্পিতভাবে নির্যাতন চালিয়ে ও মাথায় গুলি করে তাকে হত্যা করেছে।

শিবিরের এ দুই নেতা বলেন, একটি ছাত্র সংগঠনের কেন্দ্রীয় নেতাকে পৈশাচিক কায়দায় হত্যা করে আইনশৃঙ্খলা রক্ষাকারী বাহিনী যে অমানবিক বর্বরতার পরিচয় দিয়েছে তাতে দেশবাসী হতবাক। এই নৃশংস হত্যাকাণ্ড সরাসরি রাষ্ট্রীয় সন্ত্রাস। এই ন্যাক্কারজনক হত্যাকাণ্ডের মধ্যদিয়ে অবৈধ সরকারের ফ্যাসিবাদী আচরণ স্পষ্ট হয়েছে। আমরা সলামী ছাত্রশিবিরের পক্ষ থেকে এই নির্মম রাষ্ট্রীয় সন্ত্রাসের তীব্র নিন্দা ও প্রতিবাদ জানাই। অবিলম্বে সুষ্ঠু তদন্ত সাপেক্ষে নুরুর হত্যাকারীদের গ্রেফতার ও বিচারের আওতায় আনার দাবি জানান। বিজ্ঞপ্তি।

print

LEAVE A REPLY