অক্ষয়ের ছবিকে ডোবাতে ৩০ লক্ষ টাকা ঘুষ দিতে চেয়েছেন শাহরুখ!

মাসখানেক আগে বলিউডে বড়সড় বিতর্ক ছড়িয়েছিল তাঁর মন্তব্য। একটি ফোনের ভয়েস রের্কডিং সোশ্যাল মিডিয়ায় ‘ফাঁস’ করে দেন অভিনেতা অজয় দেবগন। ওই রেকর্ডিংয়ে শোনা যায়, স্বঘোষিত ফিল্ম সমালোচক কমল আর খান বা কেআরকে আর অজয় দেবগণের বিজনেস অ্যাসোসিয়েট, প্রযোজক কুমার মঙ্গত পাঠকের কথোপকথন। এই কথোপকথন চলাকালীন কেআরকে দাবি করেন, করণ জোহর তাঁকে ২৫ লক্ষ টাকা দিয়েছেন ‘শিবায়’ সম্পর্কে নেতিবাচক মন্তব্য করার জন্য। এই কল রের্কডিং ‘ফাঁস’ হওয়ার পর কাজল নিজের টুইটার হ্যান্ডেলে শুধু একটি মাত্র শব্দ লিখেছিলেন, ‘শক্‌ড’। তার পর জল অনেক দূর গড়িয়েছিল।

আবার বিতর্ক ছড়ালেন কেআরকে। আর এ বারের বিতর্কে নাম জড়াল বলিউড বাদশা শাহরুখ খানের। নিজের টুইটার হ্যান্ডলে কেআরকে দাবি করেছেন, শাহরুখ তাঁকে ফোন করে ৩০ লক্ষ টাকা দিতে চেয়েছেন অক্ষয় কুমারের ‘টয়লেট এক প্রেমকথা’ ছবিটিকে ডোবানোর জন্য। তবে তিনি শাহরুখের সেই প্রস্তাব ফিরিয়ে দিয়েছেন।

১ এপ্রিল সকালে করা কেআরকের এই টুইটের পর শত শত টুইট আসতে থাকে। অনেকেই কমল আর খানকে নিয়ে বিদ্রুপ করতে থাকেন। কেউ আবার গালিগালাজও দেন। মোদ্দা কথা, দিনটি ১ এপ্রিল হওয়ায় গত বারের মতো এ বার কেআরকের টুইটকে সে ভাবে গুরুত্ব দিতে চাননি। বেশির ভাগ মানুষই এই টুইটকে ‘এপ্রিল ফুল’-এর ঠাট্টা বলে ধরে নেন। কেআরকের এই টুইট কতটা সত্যি তা জানা যায়নি, কারণ এই টুইট সম্পর্কে শাহরুখ খান বা অক্ষয় কুমারের কোনও প্রতিক্রিয়া পাওয়া যায়নি। আর যদি এই টুইট ‘১ এপ্রিল স্পেসাল’ হয়ে থাকে তাহলে তা যে এ ভাবে বুমেরাং হবে সেটা বোধহয় একেবারেই ভাবেননি স্বঘোষিত ফিল্ম সমালোচক কমল আর খান। কারণ, এই টুইটের পরই গালিগালাজ আর বিদ্রুপে ভরে যায় তাঁর টুইটার পেজ। আনন্দবাজার

print

LEAVE A REPLY