অস্বচ্ছলরা বিনামূল্যে সেবা পাবেন : ডেপুটি স্পিকার

স্ট্রোকে আক্রান্ত রোগীর হাসপাতালে জরুরী চিকিৎসার পর ওই রোগীর পুনর্বাসন চিকিৎসা সেবা নিশ্চিত করতে বাংলাদেশ স্ট্রোক ফাউন্ডেশনের অনুষ্ঠানিক যাত্রা শুরু হলো। আজ শনিবার বিকেলে রাজধানীর উত্তরায় প্রতিষ্ঠানের প্রধান কার্যালয়ে (২৩ লেক ড্রাইভ রোড, সেক্টর-৭) ফাউন্ডেশনের কার্যক্রম অানুষ্ঠানিকভাবে উদ্বোধন করেন জাতীয় সংসদের ডেপুটি স্পিকার ও ফাউন্ডেশনের প্রতিষ্ঠাতা চেয়ারম্যান অ্যাডভোকেট মো. ফজলে রাব্বী মিয়া।

উদ্বোধনী অনুষ্ঠানে আরো বক্তৃতা করেন প্রতিষ্ঠানের ভাইস চেয়ারম্যান নিউরো মেডিসিনের সহযোগী অধ্যাপক ডা. রাশিমুল হক রিমন, উপদেষ্টা ইস্ট ওয়স্ট মেডিক্যাল কলেজের উপাধ্যক্ষ ডা. ফেরদৌস রাব্বী, বিশিষ্ট ব্যাবসায়ী জুলকার শাহীন।

অনুষ্ঠানে ডেপুটি স্পিকার বলেন, এই প্রতিষ্ঠান আর্থিকভাবে অস্বচ্ছল মানুষের স্ট্রোক রোগের চিকিৎসা পরবর্তী পুনর্বাসনের জন্য বিনামুল্যে সেবা প্রদান করবে। এছাড়া প্রতিষ্ঠানটি স্ট্রোক আক্রান্তের হার কমিয়ে আনা, সকল শ্রেণির মানুষরে জন্য উন্নত জরুরি চিকিৎসা ও পুর্নবাসন সেবো নিশ্চিত করা এবং স্ট্রোক সর্ম্পকিত শারীরিক প্রতিবন্ধিতামুক্ত বাংলাদেশ গড়তে প্রয়োজনীয় উদ্যোগ নিবে।

তিনি আরো বলেন, স্ট্রোক ফাউন্ডেশনের সেবা কার্যক্রমকে বেগবান করতে তৃণমূল পর্যায়ে সচেতনতা গড়ে তোলার জন্য জেলা, উপজেলা ও ইউনিয়ন পর্যায়ে বিভিন্ন সভা সেমিনার ও কাম্পেইন করা হবে। এটি হবে সম্পূর্ণ অলাভজনক জনকল্যানমূখী সেবামূলক প্রতিষ্ঠান হিসেবে কাজ করবে।

আলোচনায় প্রতিষ্ঠানের পক্ষ হতে জানানো হয়, রেজিস্ট্রেশন প্রাপ্তির পর থেকে ফাউন্ডেশন স্ট্রোক প্রতিরোধ নিয়ে অনলাইন ও প্রিন্ট মিডিয়ায় নিয়মিত স্ট্রোক প্রতিরোধমূলক সচেতনতামূলক র্কাযক্রম চালিয়ে যাচ্ছে । এছাড়া স্ট্রোক প্রতিরোধ ও সচেতনতা নিয়ে ৩টি বড় ধরনের প্রোগ্রাম ইতিমধ্যে সম্পন্ন হয়েছে। ওই কর্মসূচিগুলোতে প্রায় ১০ হাজার মানুষকে স্ট্রোক সচতেনতামূলক তথ্য দেওয়া হয় এবং প্রায় ৮ হাজার লিফলেট বিতরণ করা হয়।

print

LEAVE A REPLY