নিবন্ধন ছাড়া স্প্রিড বোট চললে আইনগত ব্যবস্থা

সংসদীয় কমিটির সুপারিশ অনুযায়ী দেশের বিভিন্ন রুটে চলমান স্প্রিড বোটগুলোকে নিবন্ধনের আনার উদ্যোগ নেওয়া হয়েছে। নিবন্ধন ফরম তৈরি করে তা স্প্রিড বোট মালিকদের মধ্যে বিতরণও করা হয়েছে। কিন্তু স্প্রিড বোট মালিকদের অনীহার কারণে নিবন্ধন কার্যক্রমের উল্লেখযোগ্য অগ্রগতি নেই। এনিয়ে ক্ষোভ প্রকাশ করেছে নৌ-পরিবহন মন্ত্রণালয় সম্পর্কিত সংসদীয় স্থায়ী কমিটি।

আজ রবিবার জাতীয় সংসদ ভবনে অনুষ্ঠিত কমিটির বৈঠকে বিষয়টি নিয়ে আলোচনা শেষে নিবন্ধন ছাড়া কোন স্প্রিড বোট চললে তাদের বিরুদ্ধে আইনগত ব্যবস্থা গ্রহণের সুপারিশ করা হয়েছে। ওই বৈঠকে সভাপতিত্ব করেন কমিটি সভাপতি মেজর (অব.) রফিকুল ইসলাম, বীর উত্তম। বৈঠকে কমিটি সদস্য এম আব্দুল লতিফ ও রণজিৎ কুমার রায় এবং সংশ্লিষ্ট কর্মকর্তারা উপস্থিত ছিলেন।

বৈঠকে মন্ত্রণালয়ের পক্ষ থেকে জানানো হয়, দেশের বিভিন্ন রুটে চলাচলকারী স্প্রিড বোটসমূহ নিবন্ধনের আওতায় আনার জন্য নৌপরিবহন মন্ত্রণালয়ের পক্ষ থেকে একটি কমিটি গঠিত হয়েছে। কমিটির পক্ষ থেকে স্প্রিড বোটের মালিকানা ও বিবরণ সম্বলিত তথ্য সংগ্রহের জন্য একটি ফরম তৈরি করে মাওয়া ও দৌলতদিয়া ঘাটসহ বিভিন্ন রুটের স্প্রিডবোট মালিকদের মধ্যে বিতরণ করা হয়েছে। এরপরও মালিকরা নির্ধারিত সময়ের মধ্যে তাদের বোট নিবন্ধন করতে ব্যর্থ হলে সংসদীয় কমিটির সিদ্ধান্ত অনুযায়ী তাদের বিরুদ্ধে আইনগত ব্যবস্থা নেওয়া হবে।

গত বছর একটি গোয়েন্দা সংস্থার প্রতিবেদনে বলা হয়, সারাদেশে স্প্রিড বোটগুলো প্রতিনিয়ত জনজীবনে ঝুঁকি বাড়াচ্ছে। দূর্ঘটনা ঘটলে সঠিক তথ্যের অভাবে দুর্ঘটনা কবলিত বোটের বিরুদ্ধে ব্যবস্থা নেওয়া যায় না। আর নিবন্ধন না থাকায় সরকার রাজস্ব বঞ্চিত হচ্ছে। বিষয়টি নিয়ে সংসদীয় কমিটির বৈঠকে আলোচনা হয়। এরপর বোটগুলো নিবন্ধনের আওতায় আনার সিদ্ধান্ত নেওয়া হয়

print

LEAVE A REPLY