সড়কে প্রাণ গেল আরও ৮ জনের

মাদারীপুরের রাজৈর উপজেলায় মুখোমুখি সংঘর্ষের পর বাস ও ট্রাকটি দুমড়েমুচড়ে পড়ে আছে। ছবিটি আজ রোববার সকাল নয়টার দিকে উপজেলার কামালদীর ভারত এলাকার ঢাকা-বরিশাল মহাসড়ক থেকে তোলা। ছবি: অজয় কুণ্ডুমাদারীপুরে বাস ও ট্রাকের মুখোমুখি সংঘর্ষে তিনজন নিহত হয়েছেন। সিরাজগঞ্জে তিনটি ট্রাকের সংঘর্ষে দুজন ও ট্রাকের ধাক্কায় এক মোটরসাইকেল আরোহী নিহত হয়েছেন। ব্রাহ্মণবাড়িয়ার সরাইলে বাস ও প্রাইভেট কারের মুখোমুখি সংঘর্ষে নিহত হয়েছেন একজন। জয়পুরহাটে বালুবাহী একটি ট্রাক্টরের চাকায় পিষ্ট হয়ে মারা গেছেন একজন। আজ রোববার ও গতকাল শনিবার বিভিন্ন সময়ে দুর্ঘটনাগুলো ঘটে। এ নিয়ে ১২৫ দিনে ১ হাজার ৭৮ জন নিহত হয়েছেন।

মাদারীপুর: রাজৈর ফায়ার সার্ভিসের স্টেশন অফিসার মো. আমজাদ হোসেন বলেন, বরিশাল থেকে বিআরটিসির একটি বাস রংপুর যাচ্ছিল। আর আমবোঝাই ট্রাকটি রাজশাহী থেকে বরিশাল যাচ্ছিল। আজ রোববার সকাল সাতটার দিকে উপজেলায় কামালদীর ভারত নামক এলাকায় ঢাকা-বরিশাল মহাসড়কে বাস ও ট্রাকের মুখোমুখি সংঘর্ষ হয়। এতে বাস ও ট্রাক দুটি দুমড়েমুচড়ে যায়। ঘটনাস্থলেই দুজন নিহত ও ১৬ জন আহত হন। আহত ব্যক্তিদের রাজৈর উপজেলা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সে নিয়ে গেলে সেখানে চিকিৎসাধীন অবস্থায় আরও একজনের মৃত্যু হয়। দুজনকে আশঙ্কাজনক অবস্থায় ফরিদপুর মেডিকেল কলেজ হাসপাতালে পাঠানো হয়েছে। মাদারীপুর ও রাজৈর ফায়ার সার্ভিসের কর্মী এবং ভাঙা হাইওয়ে পুলিশ উদ্ধার অভিযান চালাচ্ছেন। নিহতেরা হলেন বগুড়ার সারিয়াকান্দি এলাকার স্বপন ঘোষের ছেলে শুভ ঘোষ (২০), বরিশাল পশ্চিম মল্লিককান্দি এলাকার ফজর আলী হাওলাদারের ছেলে জাকির হোসেন হাওলাদার (৩০) ও গৌরনদী উপজেলার বাটাজোড় গ্রামের মহিউদ্দিন খানের ছেলে সাইদুর রহমান (৪০)।
সিরাজগঞ্জ: বঙ্গবন্ধু সেতু পশ্চিম থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা (ওসি) মোহাম্মদ দাউদ জানান, গতকাল শনিবার রাত সাড়ে নয়টার দিকে বগুড়া থেকে মুরগিবোঝাই ছোট একটি ট্রাক ঢাকায় যাওয়ার পথে বঙ্গবন্ধু সেতুতে সামনে থাকা একটি ট্রাককে ধাক্কা দেয়। এ সময় পেছন থেকে অপর একটি মালবোঝাই ট্রাক মুরগিবোঝাই ট্রাকটিকে ধাক্কা দেয়। এতে মুরগিবোঝাই ট্রাকের চালক মিরু মিয়া, তাঁর সহকারী আশিক ও মুরগির দুই ব্যবসায়ী আলমগীর ও শুকুর আলী সেতুর ওপর ছিটকে পড়ে গুরুতর আহত হন। খবর পেয়ে থানা-পুলিশ চারজনকে সিরাজগঞ্জের ২৫০ শয্যা হাসপাতালে নিলে চিকিৎসাধীন অবস্থায় রাত ১১টার দিকে মিরু মিয়া (২৪) ও শুকুর আলী (২৬) মারা যান।

এ ছাড়া গতকাল শনিবার দুপুরে ঢাকা-বগুড়া মহাসড়কের রায়গঞ্জ উপজেলার ১৬ মাইল নামক স্থানে একটি মোটরসাইকেলকে পেছন থেকে একটি ট্রাক ধাক্কা দিলে মোটরসাইকেল চালক গুরুতর আহত হন। তাঁকে সিরাজগঞ্জ ২৫০ শয্যা বিশিষ্ট হাসপাতালে ভর্তি করা হলে চিকিৎসাধীন অবস্থায় গতকাল রাতেই তিনি মারা যান।

এ দুটি ঘটনায় বঙ্গবন্ধু সেতু পশ্চিম ও রায়গঞ্জ থানায় মামলা দায়ের করা হয়েছে।

ট্রেন কাটা পড়ে নিহত এক

সিরাজগঞ্জে গতকাল শনিবার রাত সাড়ে নয়টার দিকে ট্রেনে কাটা পড়ে পৌরসভার এক পরিচ্ছন্নতা কর্মী নিহত হয়েছেন। তাঁর নাম শরিফুল ইসলাম (২৪)। সিরাজগঞ্জ বাজার-জামতৈল-ঈশ্বরদী রেল লাইনের রায়পুর রেল স্টেশন এলাকায় এই ঘটনা ঘটে। নিহত শরিফুল রায়পুর রেলওয়ে কলোনির সিরাজুল ইসলামের ছেলে।

সিরাজগঞ্জ রেলওয়ে থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা (ওসি) সাঈদ ইকবাল বিষয়টি নিশ্চিত করে জানান, শরিফুল নেশাগ্রস্ত ছিলেন। ধারণা করা হচ্ছে ওই রেললাইনের ওপরে সে পড়ে ছিল। রাজশাহী মেইল নামের ট্রেনটি সিরাজগঞ্জ বাজার স্টেশন থেকে ঈশ্বরদী যাওয়ার সময় কাটা পড়ে তিনি মারা যান। এ ঘটনায় একটি মামলা দায়ের করা হয়েছে।

সরাইল: ব্রাহ্মণবাড়িয়ার সরাইল উপজেলার নোয়াগাঁও ইউনিয়নের ইসলামাবাদ এলাকায় ঢাকা-সিলেট মহাসড়কে আজ রোববার দুপুর পৌনে দুইটার দিকে একটি সড়ক দুর্ঘটনা ঘটে। সিলেট থেকে ঢাকাগামী হানিফ পরিবহনের যাত্রীবাহী একটি বাস ও একটি প্রাইভেট কারের মুখোমুখি সংঘর্ষে প্রাইভেট কারের চালক আবদুল জলিল (৩৫) ঘটনাস্থলেই নিহত হয়েছে। আহত হয়েছে অন্তত ১৬ জন।
পুলিশ ও প্রত্যক্ষদর্শী লোকজন জানান, রোববার দুপুর পৌনে দুইটার দিকে ঢাকাগামী হানিফ পরিবহনের যাত্রীবাহী বাসটি একটি অটোরিকশাকে অতিক্রম করার সময় বিপরীত দিক থেকে আসা যাত্রীবাহী একটি প্রাইভেট কারের মধ্যে মুখোমুখি সংঘর্ষে প্রাইভেট কারটি দুমড়ে মুচড়ে যায়। এতে প্রাইভেটকার চালক আবদুল জলির গাড়ির মধ্যে আটকা পড়ে। দুপুর আড়াইটার দিকে দমকলবাহিনীর লোকজন গাড়ি কেটে তাঁর লাশ উদ্ধার করে। আবদুল জলির নোয়াখালী জেলার মাইজদি উপজেলার বাসিন্দা ছিলেন। দুর্ঘটনায় আহত হয়েছে প্রাইভেট কারের যাত্রী কামাল হোসেন (৪০), বাসের চালক নবী হোসেন (৪৫), চালকের সহকারী বাদশা মিয়াসহ (২৭) অন্তত ১৬ জন। তাদের স্থানীয়ভাবে প্রাথমিক চিকিৎসা দেওয়া হয়েছে।
সরাইল বিশ্বরোড মোড় হাইওয়ে থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তার দায়িত্বে থাকা উপপরিদর্শক (এসআই) মো. আবদুল হক ঘটনার সত্যতা নিশ্চিত করে প্রথম আলোকে বলেন, লাশ উদ্ধার করা হয়েছে। এ ব্যাপারে মামলার প্রস্তুতি চলছে।

জয়পুরহাট: জয়পুরহাট—খনজনপুর সড়কের জেলা বিদ্যুৎ উন্নয়ন বোর্ড (পিডিবি) কার্যালয়ের সামনে বালুবাহী একটি ট্রাক্টরের (মেসি) চাকায় পিষ্ট হয়ে হোটেল শ্রমিক মেহেদী হোসেন (২৯) ঘটনাস্থলে নিহত হন। পুলিশ ওই বালুবাহী মেসি আটক করে থানায় নিয়েছে। জয়পুরহাট থানা-পুলিশ ও এলাকা সূত্রে জানা গেছে, রোববার সকাল সাড়ে ৬টার দিকে খনজনপুর বুড়িতলার নিজ বাড়ি থেকে ব্যাটারি চালিত ইজিবাইকে চড়ে মেহেদী হোসেন জয়পুরহাট শহরের তাঁর কর্মস্থলে আসছিলেন। বিদ্যুৎ উন্নয়ন বোর্ড কার্যালয়ের সামনের সড়কে পেছন দিক থেকে জয়পুরহাট শহরের দিকে আসা বালুবাহী ট্রাক্টর ইজিবাইকের পেছনে ধাক্কা দেয়। এ সময় মেহেদী ইজিবাইক থেকে রাস্তায় ছিটকে পড়লে ট্রাক্টরের চাকায় পিষ্ট হয়ে ঘটনাস্থলে মারা যান।
সদর থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা (ওসি) ফরিদ হোসেন জানান, ট্রাক্টর আটক করা হয়েছে। চালক পলাতক।

print

LEAVE A REPLY