‘আমরা ফুটবল খেলার মতো এমপি ভাড়া করি’

আওয়ামী লীগের যুগ্ম সাধারণ সম্পাদক মাহবুবুল আলম হানিফ বলেছেন, সংসদ সদস্য হলেই আওয়ামী লীগার হওয়া যায় না। আমরা অনেক সময় ফুটবল খেলার মতো এমপি ভাড়া করে নিয়ে আসি। তার মানে এই নই যে তিনি আওয়ামী লীগে স্থায়ী।
রোববার (১৬ জুলাই) চট্টগ্রাম দক্ষিণ জেলা আওয়ামী লীগের প্রতিনিধি সভায় হানিফ এসব কথা বলেন।
মাহবুবুল ‍আলম হানিফ বলেন, আওয়ামী লীগ করতে হলে আওয়ামী লীগের ইতিহাস জানতে হবে। বঙ্গবন্ধু সম্পর্কে জানতে হবে। আমাদের নেত্রী শেখ হাসিনা সম্পর্কে জানতে হবে।
‘শুধুমাত্র আসলাম আর মনোনয়ন নিয়ে এমপি হলাম আর চলে গেলাম, এটা হবে না। আওয়ামী লীগের তৃণমূল নেতাকর্মীদের নিয়ে সংগঠনের কাজ করতে হবে। তাহলেই প্রকৃত আওয়ামী লীগার হওয়া যাবে। ’
তিনি বলেন, আগামী সংসদ নির্বাচনে তৃণমূলের সঙ্গে যাদের সম্পর্ক আছে, জনগণের সঙ্গে যাদের সম্পর্ক আছে, যাদের গ্রহণযোগ্যতা আছে তাদের আমাদের নেত্রী মনোনয়ন দেয়ার কথা চিন্তা করবেন। যাদের সঙ্গে তৃণমূলের সম্পর্ক নেই, গণমানুষের সম্পর্ক নেই তাদের মনোনয়ন পাওয়া দুরূহ হয়ে যাবে।
সভায় দক্ষিণ চট্টগ্রামের সাংসদদের বক্তব্য নিয়ে দু:খ প্রকাশ করে হানিফ বলেন, ২০০৭ সালের ১৬ জুলাই জননেত্রী শেখ হাসিনাকে সেনাসমর্থিত তত্তাবধায়ক সরকার মিথ্যা অজুহাত দিয়ে কোনো ধরনের গ্রেফতারি পরোয়ানা ছাড়াই গ্রেফতার করেছিল। আজ সেই দিবস। সেই দিবসে প্রতিনিধি সভা হচ্ছে, ‍অথচ অনেকেই বক্তব্য দিয়ে গেছেন, এই বিষয় সম্পর্কে তাদের কোন ধারণাই নেই। এটা দু:খজনক।
এর আগে বক্তব্য দিতে গিয়ে কেন্দ্রীয় সাংগঠনিক সম্পাদক এনামুল হক শামীমও কর্মীদের সঙ্গে সংসদ সদস্যদের দূরত্ব নিয়ে কথা বলেন।
শামীম বলেন, কর্মীদের বলবো, অযথা এমপিদের সমালোচনা করবেন না। আর এমপিদের বলবো, সমালোচনা করলেই কর্মীদের পুলিশে ধরিয়ে দেবেন না। কর্মীদের সমালোচনা সহ্য করতে হবে। কারণ তারা বঙ্গবন্ধুর কর্মী, শেখ হাসিনার কর্মী, আওয়ামী লীগের কর্মী। এমপিও আমাদের, দলও আমাদের।
নগরীর বাকলিয়ায় কে বি কনভেনশন হলে আয়োজিত সভায় দক্ষিণ জেলা আওয়ামী লীগের সভাপতি মোছলেম উদ্দিন আহমেদের সভাপতিত্ব ও সাধারণ সম্পাদক মফিজুর রহমান সঞ্চালনা করেন। সভায় প্রধান অতিথির বক্তব্য রাখেন কেন্দ্রীয় সাধারণ সম্পাদক এবং সড়ক পরিবহন ও সেতু মন্ত্রী ওবায়দুল ‍কাদের।
আরও বক্তব্য রাখেন কেন্দ্রীয় কেন্দ্রীয় সাংগঠনিক সম্পাদক মহিবুল হাসান চৌধুরী নওফেল, উপ প্রচার ও প্রকাশনা সম্পাদক আমিনুল ইসলাম আমিন এবং কেন্দ্রীয় উপ দপ্তর সম্পাদক বিপ্লব বড়ুয়া।
চট্টগ্রাম দক্ষিণের সাংসদদের মধ্যে ভূমি প্রতিমন্ত্রী সাইফুজ্জামান চৌধুরী জাবেদ, সামশুল হক চৌধুরী, নজরুল ইসলাম চৌধুরী, মোস্তাফিজুর রহমান এবং ড.আবু রেজা মুহাম্মদ নেজামউদ্দিন নদভি বক্তব্য রাখেন।
দক্ষিণ চট্টগ্রামের ৮টি উপজেলা ও ৫টি পৌরসভার জনপ্রতিনিধি এবং সভাপতি-সাধারণ সম্পাদকসহ ২২০০ প্রতিনিধি সভায় যোগ দেন।

উৎসঃ banglanews24

print

LEAVE A REPLY