কলকাতায় মুক্তি পেল শাকিবের নবাব, উপেক্ষিত বাংলাদেশ

যৌথ প্রযোজনায় নির্মিত ‘নবাব’ ছবিটি গেল ঈদে বাংলাদেশে মুক্তি পেয়েছিল। এবার পশ্চিমবঙ্গের বিভিন্ন অঞ্চলে ‘নবাব’ মুক্তি পেল। গতকাল শুক্রবার (২৮ জুলাই) ওপার বাংলায় ১২৮টি হলে ‘নবাব’ মুক্তি পেয়েছে বলে জানা গেছে।

তবে বাংলাদেশের জাজ মাল্টিমিডিয়া এবং কলকাতার এসকে মুভিজের প্রযোজনায় ‘নবাব’কে ঢাকায় যৌথ প্রযোজনার ছবি বলা হলেও কলকাতার পোস্টার, বিলবোর্ডসহ সবরকম প্রচারণায় উপেক্ষিত থেকেছে বাংলাদেশ। ছবিটি কলকাতার একক প্রযোজনার ছবি হিসেবেই প্রকাশ পাচ্ছে। ওপার বাংলার গণমাধ্যমেও ছবিটির প্রচার হচ্ছে লোকাল ছবি হিসেবে। কোথাও ছবির নায়ক শাকিব খানের পরিচয়টাও দেয়া নেই।

ছবিটির মুক্তি উপলক্ষে কলকাতার ও তার পাশ্ববর্তী এলাকায় ছেয়ে গেছে নবাবের পোস্টার। এমনকি মহাসড়কের কাছে বিলবোর্ডে ঠাঁই পেয়েছে শাকিবের নবাবী পোস্টার। কিন্তু বিলবোর্ডের কোথাও দেখা যায়নি যৌথ প্রযোজনার এই ছবির বাংলাদেশ অংশের পরিচালক ও প্রযোজক আবদুল আজিজের নাম।

শাকিব কোন দেশি অভিনেতা সে হিসেবেও কোনো কিছু বলা নেই। এ নিয়ে বাংলাদেশে সমালোচনার মুখে পড়েছে ছবিটির এই অঞ্চলের প্রযোজনা প্রতিষ্ঠান জাজ মাল্টিমিডিয়া ও ‘নবাব’ ছবিটি সঠিক যৌথ প্রযোজনার দাবি করে জাজের পক্ষে একতরফাভাবে সাফাই গাওয়া শাকিব খান।

চলচ্চিত্রবোদ্ধারা বলছেন, অবশেষে কলকাতায় একক প্রযোজনার পরিচয় নিয়ে মুক্তি পেয়ে ‘নবাব’ প্রমাণ করলো এটি যৌথ প্রযোজনার নিয়ম মানেনি। জাজ কেবল বাংলাদেশে ছবিটির পরিবেশক বা আমদানিকারকের ভূমিকাই পালন করেছে। কেননা, যৌথ প্রযোজনার ছবির অন্যতম একটি বৈশিষ্ট্য বা নিয়ম এটি দুই বা যে সকল দেশের প্রযোজনায় নির্মিত হবে সেই সকল দেশে ছবিটি যৌথ প্রযোজনার পরিচয় নিয়েই মুক্তি পাবে।

এ প্রসঙ্গে যৌথ প্রযোজনার নামে যৌথ প্রতারণার ছবি বন্ধের আন্দোলন করা চলচ্চিত্র পরিবারের আহ্বায়ক অভিনেতা ফারুক বলেন, দেশের সবাই এসব অনিয়ম দেখতে পায়। কিন্তু আমাদের তথ্যমন্ত্রী ও তার মন্ত্রণালয় দেখতে পাননা। তিনি হাস্যকরভাবে এইসব ছবির প্রশংসা করে বেড়ান। যা হবার হয়ে গেছে। এসব অনিয়মের ছবি আর যাতে না হয়, দেশের ইন্ডাস্ট্রি যাতে অবহেলিত না হয়, রাষ্ট্র যাতে আমদানি করা ছবির আয় থেকে প্রাপ্ত রাজস্ব থেকে বঞ্চিত না হয় সেই লক্ষ্যে আমরা সচেতন ও এক হয়েছি।’

এ বিষয়ে জাজ মাল্টিউমিডিয়ার কর্ণধার আবদুল আজিজ বলেন, ‘ছবিতে আমার প্রতিষ্ঠানের নাম আছে। পোস্টারে পরিচালকের নাম কেন দেওয়া হয়নি, তা আমার জানা নেই। হতে পারে এটা তাদের মার্কেটিং পলিসি।’ তবে প্রযোজকদের বক্তব্যের সঙ্গে কয়েকটি বিলবোর্ডের ছবি মেলালে সেই তথ্যের সত্যতা পাওয়া যায়নি। বিলবোর্ডে নেই বাংলাদেশ অংশের প্রযোজনা প্রতিষ্ঠান কিংবা পরিচালকের নাম।

এদিকে, ‘নবাব’ মুক্তির আগে কলকাতায় এর প্রিমিয়ার অনুষ্ঠিত হয় বৃহস্পতিবার। সেখানে উপস্থিত ছিলেন শাকিব খান। তিনি ছবির প্রিমিয়ার শেষে সেখানকার গণমাধ্যমে ছবিটি নিয়ে কথা বলেছেন। শাকিব বলেন, ‘আমি তো ভীষণ উচ্ছ্বসিত। কো-প্রডাকশন হচ্ছে দুই বাংলার মধ্যে। এর মানে দুই বাংলার মানুষের ভাষা এক, দুই বাংলা মানুষদের কৃষ্টি-কালচার সব কিছুতে একটা মিল আছে। আর আমরা তো বাঙালি।’

‘নবাব’ শাকিব অভিনীত যৌথ প্রযোজনায় নির্মিত দ্বিতীয় ছবি। ছবিতে শাকিবের নায়িকা শুভশ্রী। এর আগে তিনি ‘শিকারী’ ছবিতে অভিনয় করেছিলেন।

print

LEAVE A REPLY