একটি মানুষও ঘরহারা থাকবে না: প্রধানমন্ত্রী

প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা বলেছেন, বন্যায় ক্ষতিগ্রস্ত দুর্গত এলাকার একটি মানুষও ঘরহারা থাকবে না। তাদের পুনর্বাসনে সরকার সব ধরনের সহায়তা দেবে।

শনিবার বেলা পৌনে ১১টার দিকে গাইবান্ধার গোবিন্দগঞ্জ উপজেলা পরিষদ চত্বরে বন্যার্তদের মাঝে ত্রাণ এবং ক্ষতিগ্রস্ত কৃষকদের মধ্যে ধানের চারা বিতরণকালে প্রধানমন্ত্রী এ কথা বলেন।

প্রধানমন্ত্রী বলেন, বন্যা মোকাবেলায় আগে থেকেই সরকারের প্রস্তুতি ছিল। তাই এমন ভয়াবহ বন্যায়ও ক্ষয়ক্ষতি কম হয়েছে। নদী ভাঙনরোধে তার সরকার স্থায়ী ব্যবস্থা নেবে বলে নদীপাড়ের দুর্গতদের আশ্বাস দেন তিনি।

শেখ হাসিনা বলেন, বন্যার কারণে খাদ্য ঘাটতি হতে দেবে না সরকার। প্রয়োজনে বিদেশ থেকে খাদ্য আমদানি করে খাদ্য নিরাপত্তা নিশ্চিত করা হবে।

এসময় বন্যায় ক্ষতিগ্রস্ত হওয়া কৃষকদের আশ্বস্ত করে প্রধানমন্ত্রী বলেন, তার সরকার ১১৭ কোটি টাকা কৃষি পুর্নবাসন সহায়তা দেবে। ক্ষতিগ্রস্ত এলাকাগুলোতে এক বিঘা করে জমিতে ফসল চাষের ব্যবস্থা করা হবে।

শেখ হাসিনা বলেন, মানুষের ক্ষয়ক্ষতি করেছে বিএনপি-জামায়াত। আর আওয়ামী লীগ মানুষের পাশে দাঁড়িয়েছে।

তিনি বিএনপি-জামায়াতের প্রতি ইঙ্গিত করে বলেন, যারা আগুন দিয়ে মানুষ হত্যা করে তারা দেশের কল্যাণ করতে পারে না, ধ্বংস করতে পারে। তাদের বিরুদ্ধে জনগণকে রুখে দাঁড়াতে আহ্বান জানান শেখ হাসিনা।

এর আগে সকাল ১০টার কিছুক্ষণ পর হেলিকপ্টারে করে বন্যাদুর্গত গাইবান্ধায় পৌঁছেন প্রধানমন্ত্রী।

এরপর গোবিন্দগঞ্জ উপজেলা পরিষদ চত্বরে বন্যার্তদের মাঝে ত্রাণ এবং ক্ষতিগ্রস্ত কৃষকদের মধ্যে ধানের চারা বিতরণ করেন তিনি।

গাইবান্ধা থেকে বগুড়ার সারিয়াকান্দি উপজেলার উদ্দেশে রওনা হবেন প্রধানমন্ত্রী। সেখানেও তিনি বন্যাদুর্গতদের মাঝে ত্রাণ এবং ক্ষতিগ্রস্ত কৃষকদের মাঝে ধানের চারা বিতরণ করবেন।

print

LEAVE A REPLY