ভয়ঙ্কর খুনি সু চি

মিয়ানমারের রাখাইন রাজ্যে নিরপরাধ মুসলিম রোহিঙ্গাদের নির্বিচারে হত্যার ঘটনায় সামাজিক যোগাযোগমাধ্যমে সরব হয়ে উঠেছেন বাংলাদেশিসহ বাংলাভাষীরা। তারা রোহিঙ্গাদের নির্যাতনের তীব্র প্রতিবাদ, নিন্দা ও ঘৃণা প্রকাশ করে স্ট্যাটাস দিচ্ছেন, পোস্ট শেয়ার করছেন। বেশিরভাগ স্ট্যাটাসে তুলোধোনা করা হচ্ছে শান্তিতে নোবেলজয়ী মিয়ানমারের নেত্রী অং সান সু চিকে। সাম্প্রতিক ঘটনাপ্রবাহে তার শুধু তীব্র সমালোচনাই হচ্ছে না, বিচারও দাবি করা হচ্ছে। কেউ কেউ ফাঁসির দাবিও তুলছেন। স্ট্যাটাসে সু চির ব্যঙ্গচিত্রও পোস্ট করছেন অনেকে।
জনপ্রিয় শিল্পী আসিফ আকবর গতকাল ফেসবুকে এক স্ট্যাটাস দিয়েছেন। তাতে লেখেন, বিশ্বের সবচেয়ে ভয়ঙ্কর খুনি বর্মি বর্গি অং সান সু চিকে গণহত্যার অভিযোগে গ্রেপ্তার করা হোক। আন্তর্জাতিক আদালতে মানবাধিকার লঙ্ঘনের দায়ে বিশেষ ট্রাইব্যুনালে তার বিচারও চেয়েছেন।
তিনি লিখেছেন, বিশ্ব বিবেক জাগ্রত হোক, নির্বিচারে রোহিঙ্গা হত্যাকারী অং সান সু চির শান্তিতে পাওয়া নোবেল কেড়ে নেওয়া হোক। মাতৃভূমিতে বসবাস করতে পারা তাদের অধিকার, রোহিঙ্গাদের সেই অধিকার ফিরিয়ে দেওয়া হোক।
কেউ কেউ ফেসবুকে লিখেছেন, বাংলাদেশের মানুষ আশা করেছিল সু চির দল ক্ষমতাসীন হলে রোহিঙ্গা নির্যাতন বন্ধ হবে।
রোহিঙ্গা মুসলিমরা তাদের নিজ মাতৃভূমিতে শান্তিতে অধিকার নিয়ে বসবাস করতে পারবেন। কিন্তু তার উল্টো চিত্র দেখা গেছে তার দল ক্ষমতাসীন হওয়ার পর। এখন আরও বেশি করে অত্যাচার-নির্যাতন নেমে এসেছে রোহিঙ্গাদের ওপর। তার মদদেই রোহিঙ্গাদের ওপর বর্বর নির্যাতন চালানো হচ্ছে বলে বাংলাদেশিরা মনে করেন। মিয়ানমারের সেনাবাহিনী বর্তমানে রাখাইনে রোহিঙ্গাদের ধরে ধরে গুলি করে মারছে। অথচ সেই সেনাবাহিনীর ভূয়সী প্রশংসা করছেন অং সান সু চি। রোহিঙ্গা ইস্যুতে সু চির ভূমিকা নিয়ে শুধু বাংলাদেশেই নয়, সারা বিশ্বেই সমালোচনা হচ্ছে।

monitorBD

print

LEAVE A REPLY