সৌদি বাদশাহর সঙ্গে বৈঠক করলেন এরশাদ

রিয়াদ: দীর্ঘদিন পর সৌদি বাদশাহ সালমান আব্দুল আজিজের সঙ্গে বৈঠক করেছেন জাতীয় পার্টির চেয়ারম্যান হুসেইন মুহম্মদ এরশাদ এমপি। পবিত্র মক্কা নগরীর মিনা প্যালেসে শনিবার বৈঠকটি অনুষ্ঠিত হয়।

এ সময় বাদশার সঙ্গে সৌদি আরবের ক্রাউন প্রিন্স মোহাম্মদ বিন সালমান এবং এরশাদের সফরসঙ্গী জাতীয় পার্টির মহাসচিব এবিএম রুহুল আমিন হাওলাদার এমপি, তার স্ত্রী নাসরিন জাহান রত্না হাওলাদার এমপি ও প্রেসিডিয়াম সদস্য মেজর অব. খালেদ আখতার উপস্থিত ছিলেন।

প্রায় ১৫ বছরের বেশি সময় সৌদি বাদশাহর রাষ্ট্রীয় অতিথি হিসেবে তার সঙ্গে দেখা-সাক্ষাৎ ও বৈঠকের সুযোগ পাননি এরশাদ। দীর্ঘদিন পর এবার এরশাদ সৌদি বাদশাহর আমন্ত্রণে পবিত্র হজ পালনের জন্য সৌদ আরব যান।

তিনি দলের মহাসচিবসহ তিনজন সফরসঙ্গী নিয়ে বাদশাহর মেহমানখানায় উঠেন। পবিত্র হজ আদায় করে শনিবার মক্কা শরিফের মিনা প্যালেসে বাদশাহর সঙ্গে সাক্ষাৎ ও বৈঠক করেন।

সৌদি বাদশার সঙ্গে এরশাদের বৈঠকের বিষয়টি নিশ্চিত করেছেন জাতীয় পার্টির প্রেসিডিয়াম সদস্য ও মহানগর উত্তর সভাপতি এস এম ফয়সল চিশতী।

তিনি বলেন, পার্টির মহাসচিব ও প্রেসিডিয়াম সদস্য মেজর খালেদের সঙ্গে আমার কথা হয়েছে, তারা বলেছেন, শনিবার বাদশার মেহমানখানায় আমাদের পার্টির চেয়ারম্যানের সঙ্গে সৌদি বাদশাহর বৈঠক হয়। খুবই আন্তরিক ও সৌহার্দ্যপূর্ণ পরিবেশে তাদের মধ্যে কথা হয়। তারা বাংলাদেশ ও সৌদি আরবের দ্বিপাক্ষিক বিষয় নিয়ে কথা বলেছেন। এ সময় পার্টির চেয়ারম্যান সৌদি বাদশাহকে শ্রমিক নিয়োগসহ বাংলাদেশের বিভিন্ন খাতে বিনিয়োগের অনুরোধ জানিয়েছেন।

সৌদি আরবকে বাংলাদেশের ঘনিষ্ঠ বন্ধু উল্লেখ করে সব সময় পাশে থাকবে এমন আশাবাদ ব্যক্ত করে সৌদি বাদশহার প্রতি কৃতজ্ঞতা প্রকাশ করেন এর।

বৈঠকে সৌদি বাদশাহও এরশাদের শাসনামলের বেশ কিছু পদক্ষেপ বিশেষ করে ইরাক-কুয়েত যুদ্ধে সৈন্য প্রেরণের সাহসী সিদ্ধান্তের ভূয়সী প্রশংসা করেন। সৌদি আরব সবসময় বাংলাদেশের পাশে থাকবে বলেও মত দেন সৌদি বাদশা।

হজের আনুষ্ঠানিকতা শেষ করে এরশাদ আগামী ৮ সেপ্টেম্বর দেশে ফিরবেন।

print

LEAVE A REPLY