আমি এক বাংলাদেশি ইহুদি ইসরাইলে আশ্রয় চাই

ইসরাইলের প্রভাবশালী পত্রিকা জেরুজালেম পোস্টকে দেওয়া এক স্বাক্ষাতকারে নিজেকে রাষ্ট্রহীন ইহুদি দাবি করে তিনি বলেন, বাংলাদেশে প্রবেশ করতে ব্যর্থ হয়ে আামাকে আবার ইসরাইলে ফিরে আসতে হয়েছে। চলতি বছরের ফেব্রুয়ারিতে তিনি ইসরাইল সফর করেন বলে জানান। ওই ব্যক্তির নাম সাদমান জামান(২৫)।
নিজেকে রাষ্ট্রহীন ইহুদি দাবি করে ইসরাইলে আশ্রয় চেয়েছেন এক বাংলাদেশি।

জেরুজালে পোস্ট জানায়, বাংলাদেশি সাদমান জামান বুধবার (২২ নভেম্বর) ব্রিটেন থেকে ব্রিটিশ ও আইরিশের একটি প্রতিনিধি দলের সহযোগিতায় ইসরাইলে গিয়ে পৌঁছান। ২৫ বছর বয়সী সাদমান নিজেকে একজন ইহুদি হিসেবে দাবি করেন।

জেরুজালেম পোস্টকে সাদমান বলেন, ‘আমাদের দেশের বইগুলোতে ইহুদিদের শয়তানের প্রতিরূপ হিসেবে শিক্ষা দেওয়া হয়। বলা হয়, ইহুদিরা সারা বিশ্বের নিয়ন্ত্রণ নিয়ে গেছে।’
তিনি বলেন, বাংলাদেশের শিক্ষা ব্যবস্থার কারণে ইহুদি বিরোধী মনোভাবের সঙ্গে পরিচিত হলেও নিজ পরিবারকে একটি উদার ও অসাম্প্রদায়িক হিসেবে বর্ণনা করেন সাদমান।

সাদমান জানান, মাত্র ১২ বছর বয়সে এ্যালান দেরশো বিজের লেখা ‘দ্য কেস ফায়ার অব ইসরাইল’বইটি তার জীবনের মোড় ঘুরিয়ে দিয়েছে। বইটি পড়ার পরই ইহুদিদের সম্পর্কে জানতে আরও বেশি তৃষ্ণার্থ হয়ে উঠেন সাদমান। ওই তৃষ্ণা মেটাতে তাকে সবচেয়ে বেশি সহযোগিতা করেন তার দাদা। নাতির জন্য তিনি ইহুদিবাদ সংক্রান্ত অসংখ্য বই লুকিয়ে বাংলাদেশে নিয়ে আসতেন।

সাদমানকে কোন বাংলাদেশি পাসপোর্টে ইসরাইলে প্রবেশ করা প্রথম ব্যক্তি হিসেবে চিহ্নিত করে জেরুজালেম পোস্ট। যদিও বাংলাদেশের আইন অনুযায়ী কোন নাগরিক ইসরাইলে ভ্রমণের জন্য অনুমোদিত নয়। এমনকি বাংলাদেশি পাসপোর্টেও উল্লেখ আছে যে, ভ্রমণকারী ব্যক্তি ইসরাইলে ভ্রমণ করতে পারবেন না।

ইসরাইলে যাওয়ার জন্য দাদার কাছ থেকেই অনুপ্রেরণা পেতেন সাদমান। মৃত্যুর আগে দাদা তাকে বলে গিয়েছিলেন, ‘প্রথম দেশ হিসেবে তোমার ইসরাইলই ভ্রমণ করা উচিৎ।’এসময় তিনি তার একজোড় জুতা প্রিয় নাতিকে উপহার দেন। সাদমান বলেন, ‘আমি দাদার জুতো পরেই ইসরাইলের মাটিতে প্রথম পা রাখি। আমার মনে হয়েছিলো যেন, দাদাকে সঙ্গে নিয়েই আমি ইসরায়েলে প্রবেশ করেছি।’

নিজের দাদাকে একজন ইহুদিবাদী হিসেবে চিহ্নিত করে সাদমান বলেন, ‘আমার দাদা মনে করতেন, অস্তিত্ব নিয়ে টিকে থাকার অধিকার ইসরাইলের আছে।’

সাদমান দাবি করেন, বাঙালীদের তীব্র আকাঙ্ক্ষা থেকে যেমন বাংলাদেশের সৃষ্টি তেমনিভাবেই ইহুদি রাষ্ট্রেরও জন্ম। বাংলাদেশের স্বাধীনতা যুদ্ধে ইসরাইলের সহযোগিতা ছিলো উল্লেখ করে সাদমান বলেন, ‘স্বাধীন বাংলাদেশকে স্বীকৃতি দেওয়া প্রথম দেশ হলো ইসরাইল।’কিন্তু এটি স্বীকার করা হয় না।

ব্যক্তিগত জীবনে ডাক্তারি বিষয়ে পড়াশোনা করা সাদমান প্রাথমিক অবস্থায় যুক্তরাজ্যে বসবাস শুরু করেছিলেন। পরবর্তীতে সেখান থেকেই তিনি ইসরাইলে গমণ করেন।

সাদমান জেরুজালেম পোস্টকে আরও জানান, বাংলাদেশের সঙ্গে ইসরাইলের সম্পর্ক তৈরি করতে তিনি কাজ করে যাচ্ছেন।

print

LEAVE A REPLY