পুনরায় খালেদা জিয়ার যুক্তিতর্ক ১০ জানুয়ারি

জিয়া অরফানেজ ট্রাস্ট ও জিয়া চ্যারিটেবল ট্রাস্ট দুর্নীতি মামলায় সপ্তম দিনের মতো নিজের পক্ষে যুক্তিতর্ক উপস্থাপন করেছেন বিএনপির চেয়ারপারসন খালেদা জিয়া।

বৃহস্পতিবার দুপুরে রাজধানীর বকশীবাজারে স্থাপিত বিশেষ আদালতে খালেদা জিয়ার পক্ষে তার আইনজীবী এ জে মোহাম্মদ আলী যুক্তি উপস্থাপন করেন। দুপুরের পর মামলার মুলতবি দিয়ে বিচারক বিশেষ জজ ড. আখতারুজ্জামান আগামী ১০-১১ জানুয়ারি নতুন দিন ধার্য করেন।

এর আগে বিএনপি চেয়ারপারসন বৃহস্পতিবার বেলা ১১টা ৩৫ মিনিটে পুরান ঢাকার বকশীবাজার আলিয়া মাদ্রাসা মাঠে স্থাপিত অস্থায়ী বিশেষ আদালতে পৌঁছান। তারপরই যুক্তিতর্ক তুলে ধরেন তার আইনজীবী। বৃহস্পতিবার শুনানি শেষে খালেদা জিয়ার আইনজীবী বিষয়টি নিশ্চিত করেছেন।

বুধবার ষষ্ঠ দিনের মতো এ মামলার শুনানি শেষে আদালত বৃহস্পতিবার সকাল পর্যন্ত মুলতবি করে দেন। এর আগে ২৮ ডিসেম্বর পঞ্চম দিনের মতো খালেদা জিয়ার পক্ষে যুক্তি উপস্থাপন করেন তার আইনজীবীরা।

গত ১৯ ডিসেম্বর জিয়া অরফানেজ ট্রাস্ট দুর্নীতি মামলার যুক্তি উপস্থাপন শুরু হয়। রাষ্ট্রপক্ষ ১৯ ডিসেম্বর তাদের যুক্তি উপস্থাপন শেষ করে খালেদার সর্বোচ্চ শাস্তির আবেদন করেন।

২০ ডিসেম্বর খালেদার পক্ষে যুক্তি উপস্থাপন শুরু করেন তার আইনজীবী আব্দুর রেজ্জাক খান। এদিন শেষ না হওয়ায় ২১ ডিসেম্বর পরবর্তী যুক্তি উপস্থাপনের দিন ধার্য করেন আদালত। ২১ ডিসেম্বর খালেদার পক্ষে যুক্তি উপস্থাপন শেষ না হওয়ায় ২৬, ২৭ ও ২৮ ডিসেম্বর পরবর্তী যুক্তি উপস্থাপনের জন্য দিন ধার্য করেন আদালত।

আদালত সূত্র জানায়, দুর্নীতির এ দুই মামলায় চলতি বছরের ১২ অক্টোবর খালেদা জিয়ার বিরুদ্ধে গ্রেফতারি পরোয়ানা জারি করেছিলেন আদালত। ১৯ অক্টোবর এ দুই মামলায় তার জামিন মঞ্জুর করেন আদালত।

জিয়া চ্যারিটেবল ট্রাস্টের নামে অবৈধভাবে ৩ কোটি ১৫ লাখ ৪৩ হাজার টাকা লেনদেনের অভিযোগে ২০১০ সালের ৮ আগস্ট রাজধানীর তেজগাঁও থানায় একটি মামলা করে দুদক। আর জিয়া অরফানেজ ট্রাস্টের নামে এতিমদের জন্য বিদেশ থেকে আসা ২ কোটি ১০ লাখ ৭১ হাজার ৬৭১ টাকা আত্মসাতের অভিযোগে ২০০৮ সালের ৩ জুলাই রাজধানীর রমনা থানায় অপর মামলাটি করা হয়।

print

LEAVE A REPLY