নাসিক মেয়র সেলিনা হায়াৎ আইভী আইসিসিইউতে

নারায়ণগঞ্জ: নারায়ণগঞ্জ সিটি কর্পোরেশনের মেয়র ডা. সেলিনা হায়াৎ আইভীকে অসুস্থ অবস্থায় রাজধানীর ল্যাবএইড হাসপাতালের আইসিসিইউতে ভর্তি করা হয়েছে। এর আগে চিকিৎসার জন্য তাকে অ্যাম্বুলেন্সে করে ঢাকায় আনা হয়।

বৃহস্পতিবার বিকেল পাঁচটার দিকে তাকে রাজধানীর ল্যাবএইড হাসপাতালে ভর্তি করা হয়। বিষয়টি নিশ্চিত করেছেন মেয়র আইভীর ছোট ভাই আলী আহম্মদ রেজা উজ্জল।

এর আগে নারায়ণগঞ্জ সিটি করপোরেশনের মেয়র সেলিনা হায়াত আইভী হঠাৎ অসুস্থ হয়ে পড়লে ঢাকা উদ্দেশ্যে নিয়ে যাওয়া হয়েছে বলে আওয়ামী লীগ নেতা আবু সুফিয়ান ঘটনার সত্যতা নিশ্চিত করেছেন।

এব্যাপারে মেয়রের ব্যক্তিগত সহকারী আবুল হোসেন জানিয়েছেন, বৃহস্পতিবার বিকেল ৪টার দিকে নগর ভবনে থাকার সময় হঠাৎ অসুস্থ হয়ে পড়েন আইভী। তাকে তাৎক্ষণিকভাবে নারায়ণগঞ্জ জেনারেল হাসপাতালে নেয়া হয়। সেখানে প্রাথমিক চিকিৎসা দিয়ে পরীক্ষা-নিরীক্ষা শেষে মেয়রকে ঢাকায় চিকিৎসা নেয়ার পরামর্শ দেন চিকিৎসক।

নারায়ণগঞ্জ জেনারেল হাসপাতালের আবাসিক মেডিকেল সার্জন (আরএমও) আসাদুজ্জামান জানান, বিকেল ৪টার দিকে মেয়র আইভীকে অসুস্থ অবস্থায় হাসপাতালে আনা হয়। পরে চার সদস্যের একটি মেডিকেল টিম তার পরীক্ষা-নিরীক্ষা করে। প্রাথমিক চিকিৎসা দিয়ে তাকে উন্নত চিকিৎসার জন্য ঢাকায় পাঠানো হয়েছে।

মঙ্গলবারের সংঘর্ষে আহত আইভী বৃহস্পতিবার দুপুর থেকে বেশি অসুস্থ অনুভব করেন। এরপর কয়েকবার বমি করলে তাকে স্যালাইন দেয়া হচ্ছিলো। তবুও শারীরিক অবস্থা বিবেচনা করে চিকিৎসকরা তাকে ঢাকায় নিয়ে আসার পরামর্শ দেন। এরপর বিকাল ৪ টায় মেয়র আইভীকে নিয়ে একটি অ্যাম্বুলেন্স ঢাকার দিকে রওনা হয়।

এর আগে সংঘর্ষের বিষয়ে বুধবার বিকেলে সংবাদ সম্মেলন করে সেলিনা হায়াৎ আইভী বলেছিলেন, হত্যার উদ্দেশ্যেই তার ওপর হামলা করা হয়েছে। তিনি বলেন: আধাঘণ্টা রাস্তায় পড়ে ছিলাম, তখন পুলিশ আসতে পারতো। ত্বকী হত্যার ঘটনায় সবচেয়ে বেশি আন্দোলনে তো আমিই ছিলাম। তখন তো পুলিশ চলে আসতো মাঝখানে। একতরফা এভাবে কেউ মার খাইনি।

‘আমার দেড়শ’ থেকে দুইশ’ কর্মীকে আহত করলো। আমার কর্মীদের সবার মাথা ফাঁটা। আমার ভাই আহত, আমি হাঁটতে পারি না। প্রশাসন আমাকে ইনফর্ম করতে পারতো। বলতে পারতো, ওখানে এত বড় ঘটনা ঘটতে পারে, আপনি যাবেন না ওখানে। আমরা যারা মানুষের জন্য কাজ করি তারা জন্মমৃত্যু নিয়েই কাজ করি।

নারায়ণগঞ্জের ফুটপাতে হকার বসানোকে কেন্দ্র করে মঙ্গলবার সাংসদ শামীম ওসমান ও মেয়র আইভী সমর্থকদের সংঘর্ষে মেয়র আইভী, সাংবাদিকসহ শতাধিক আহত হয়। প্রকাশ্যে অস্ত্রের মহড়াসহ দফায় দফায় ধাওয়া পাল্টা ধাওয়ার ঘটনায় পুরো এলাকা রণক্ষেত্রে পরিণত হয়।

print

LEAVE A REPLY