নিখোঁজ বিশ্ববিদ্যালয় ছাত্রের ফোন থেকে ভাইকে হত্যার হুমকি

ঢাকায় বাসা থেকে বের হয়ে তিনদিন ধরে নিখোঁজ রয়েছেন কিশোরগঞ্জ সদর উপজেলার যশোদল মধ্যপাড়া গ্রামের অবসরপ্রাপ্ত স্কুল শিক্ষক মো. আরশাদ আলীর ছেলে আলী আশফাকুল হাসান ফাহাদ (২৩)।

তিনি ঢাকার ইন্টারন্যাশনাল ইউনিভার্সিটি অব বিজনেস এগ্রিকালচার এন্ড টেকনোলজির মেকানিক্যাল ইঞ্জিনিয়ারিং এর ৬ষ্ঠ সেমিস্টারের ছাত্র এবং মিরপুরের দারাজ অনলাইন শপিং কোম্পানির কনটেন্ট ডেভলাপার।

তিনি গত ১ এপ্রিল সকালে রাজধানীর মিরপুরের পশ্চিম শেওড়াপাড়া এলাকার বাসা থেকে কর্মস্থলে যাওয়ার পথে নিখোঁজ হন। নিখোঁজ বিশ্ববিদ্যালয় ছাত্রের বড় ভাই স্থপতি আলী নাসের জামীল ঘটনার দিন রাতেই মিরপুর মডেল থানায় এ বিষয়ে সাধারণ ডায়েরি (জিডি নং-৭১) করেছেন।

ফাহাদ নিখোঁজের ঘটনায় পরিবার-পরিজন যখন উদ্বেগ-উৎকণ্ঠায় সময় পার করছেন তখন তার (ফাহাদের) ব্যবহৃত মোবাইল (০১৭০০৭৩১৮২৯) ফোন থেকে বড় ভাই স্থপতি আলী নাসের জামীলের মোবাইল নম্বরে (০১৭৩৪৪২৯৫৮১) একটি ম্যাসেজ পাঠিয়ে হুমকি আসে।

এতে বলা হয়, ‘পরবর্তী টার্গেট তুই আর জাহিদ।’ হুমকিপ্রাপ্ত জাহিদ নিখোঁজ বিশ্ববিদ্যালয় ছাত্র ফাহাদ এবং স্থপতি আলী নাসের জামীলের বড় ভাই। তিনি বর্তমানে সিঙ্গাপুর প্রবাসী জীবন কাটাচ্ছেন। নিখোঁজ ছোট ভাইয়ের মোবাইল থেকে এ ধরণের হুমকি আসার পর থেকে পরিবারের লোকজন অজানা আশঙ্কায় দিশেহারা হয়ে পড়েছেন।

বড় ভাই আলী নাসের জামীল জানিয়েছেন, রাজধানীর মিরপুরের পশ্চিম শেওড়াপাড়া এলাকায় তার ভাড়া বাসায় থেকে ছোট ভাই আলী আশফাকুল হাসান ফাহাদ রাজধানীর আব্দুল্লাহপুর এলাকার ইন্টারন্যাশনাল ইউনিভার্সিটি অব বিজনেস এগ্রিকালচার এন্ড টেকনোলজিতে পড়াশোনা করতেন। মাত্র মাস দেড়েক আগে তিনি অনলাইন শপিং কোম্পানির অনলাইন কনটেন্ট ডেভলাপার হিসেবে চাকরি নেন।

মিরপুর মডেল থানার ওসি মো. নজরুল ইসলাম জানান, নিখোঁজ আলী আশফাকুল হাসান ফাহাদের সন্ধানে পুলিশী তৎপরতা অব্যাহত আছে। তিনদিন পরও প্রিয় সন্তানের সন্ধান না পেয়ে চোখের জলে বুক ভাসাচ্ছেন ফাহাদের পিতা অবসরপ্রাপ্ত শিক্ষক মো. আরশাদ আলী। তিনি তার সন্তানকে দ্রুত উদ্ধারের জন্য সরকারের কাছে আকুল আবেদন জানিয়েছেন।

যুগান্তর

print

LEAVE A REPLY