ইহুদী ও শিয়াদের সাদৃশ্যঃ

ইহুদী ও শিয়াদের সাদৃশ্যঃভালোভাবে জেনে নিন!
********************************************
♦রাফেজী শিয়ারা হচ্ছে ইহুদীদের পরিমার্জিত সংস্করণ। শিয়া ফিরকার প্রতিষ্ঠাতা আব্দুল্লাহ ইবনে সাবাহ নামক ইহুদী। শাইখুল ইসলাম ইবনে তাইমিয়া রাহিঃ কতৃক বর্ণিত ইহুদী ও রাফেজীদের মধ্যকার সাদৃশ্যগুলি দেকলে বিষয়টি স্পষ্ট বুঝা যায়। সাদৃশ্যগুলি নিম্নরুপঃ

♠১। ইহুদীদের দাবী দাউদ (আঃ) এর বংশধর ব্যতীত অন্য কারও জন্য রাজত্ব বৈধ নয়। আর রাফেজী শিয়াদের দাবী আলী (রাঃ) এর সন্তানগণ ব্যতীত অন্য কারও জন্য ইমামত বৈধ নয়।

♠২।ইহুদীরা বলে মাসীহ দাজ্জালের আবির্ভাব ও তরবারি অবতীর্ণ ছাড়া জিহাদ ফি সাবিলিল্লাহ নেই।শিয়ারা বলে, ইমাম মাহদীর আগমন ও আসমানি আহবান ছাড়া জিহাদ ফি সাবিলিল্লাহ নেই।

♠৩।ইহুদীরা আসমানে তারকারাজি উজ্জল না হওয়া পর্যন্ত সালাত বিলম্ব করে। রাফেজীরা মাগরিবের সালাত তারকারাজি স্পষ্ট ও উজ্জল হওয়া পর্যন্ত বিলম্ব করে।

♠৪।ইহুদীরা তাওরাত পরিবর্তন করেছে আর রাফেজীরা কুরআন পরিবর্ন করেছে।

♠৫। ইহুদী ও রাফেজী উভয়ই মোজার উপর মাসাহ বৈধ মনে করে না।

♠৬। ইহুদীরা ফেরেশতাদের প্রতি বিদ্বেষ পোষন করে ও বলে জিবরীল আমাদের শত্রু।শিয়ারা বলে জিবরীল ভুল করে মুহাম্মদের উপর ওহী অবতীর্ণ করেছে।

♠৭।ইহুদী ও রাফেজীরা নিজেদের ছাড়া অন্যদের কাফের মনে করে এবং তাদের রক্ত ও সম্পদ হালাল মনে করে।

♣★দুইটি বিষয়ে রাফেজীরা ইহুদী ও খ্রিস্টান থেকেও নিকৃষ্ট। ইইহুদীরা বলে আমাদের ধর্মে সর্ব উৎকৃষ্ট মুসা ও তার সাথীগণ।” খ্রিস্টানগণ বলে “আমাদের ধর্মে সর্ব উৎকৃষ্ট ঈসা ও তার সাথীগণ।”

*আর রাফেজী শিয়ারা বলে, ” আমাদের ধর্মে সর্ব নিকৃষ্ট মুহাম্মদের সাথীগণ।”
♦এদের থেকে সাবধান!এরা মুলত ইসলামের মুল দুশমন,যত মুসলমান এরা হত্যা করেছে,কাফের মুশরিক রাও তা আজ অবধি পারেনি।

Fb/abdulhimd.saifullah

print

LEAVE A REPLY