তাপপ্রবাহ নিয়ে চরম দুঃসংবাদ দিল আবহাওয়া অফিস

টানা বৃষ্টির কারণে এবার চৈত্র ও বৈশাখে পারদ চড়তে পারেনি। আর জ্যৈষ্ঠ এ দেশের উষ্ণতম মাস হলেও এবার এর অর্ধেক পার হতে চললেও নেই অস্বস্তিকর গরম। তবে গ্রীষ্মকালটা আরামেই কাটবে- এ ধারণা যারা করেছিলেন তাদের জন্য দুঃসংবাদ রয়েছে। বৃষ্টির প্রবণতা কমতেই গরম বাড়তে শুরু করেছে। মৃদু তাপপ্রবাহ বইতে শুরু করেছে খুলনা ও রাজশাহী বিভাগে।

রোববার দেশের সর্বোচ্চ তাপমাত্রা রেকর্ড করা হয়েছে যশোরে ৩৬ দশমিক ৬ ডিগ্রি সেলসিয়াস। তিন দিনের ব্যবধানে রাজধানীতে তাপমাত্রা বেড়েছে তিন ডিগ্রি। রোববার ঢাকায় সর্বোচ্চ তাপমাত্রা রেকর্ড করা হয়েছে ৩৫ দশমিক ৫ ডিগ্রি সেলসিয়াস। সর্বনিম্ন তাপমাত্রা ছিল ২৭ দশমিক ৫ ডিগ্রি।

আবহাওয়াবিদরা বলছেন, বৃষ্টিপাত কমে যাওয়ায় গরম বেড়েছে। রোববার রংপুর বিভাগ ছাড়া দেশের কোথাও বৃষ্টি হয়নি। রংপুর বিভাগ ছাড়া সর্বত্র তাপমাত্রা চড়তে শুরু করেছে।

আবহাওয়ার পূর্বাভাসে বলা হয়েছে, ঢাকায় আগামী তিন দিনে বৃষ্টিপাতের সম্ভাবনা ক্ষীণ। ৩০ মের পর বৃষ্টি হবে। পূর্বাভাসে বলা হয়েছে, আগামী কয়েক দিন দিনের তাপমাত্রা ১ থেকে ২ ডিগ্রি বাড়তে পারে। বাড়তে পারে রাতের তাপমাত্রাও।

তাপমাত্রা ৩৬ ডিগ্রি ছাড়িয়ে গেলেই আবহাওয়ার ভাষায় তাকে মৃদু তাপপ্রবাহ বলা হয়।

আবহাওয়া অধিদপ্তরের আবহাওয়াবিদ শাহীনুল ইসলাম সমকালকে বলেন, আরও অন্তত দু’দিন খুলনা ও রাজশাহী অঞ্চলে তাপমাত্রা ৩৬ ডিগ্রির বেশি থাকলেই তাপপ্রবাহের উপস্থিতি ঘোষণা করা হবে। তিনি জানিয়েছেন, আগামী বুধবার বা তার কাছাকাছি সময়ে ঢাকায় বৃষ্টি হতে পারে। তার আগে বৃষ্টির সম্ভাবনা ক্ষীণ।

গত বছরের মে মাসে স্মরণকালের দীর্ঘতম তাপদাহ ছিল দেশজুড়ে। রাজশাহীতে তাপমাত্রা ৪০ ডিগ্রি ছাড়িয়েছিল। ঢাকায় তাপমাত্রা ছিল ৪০ ডিগ্রি ছুঁইছুঁই। শাহীনুল ইসলাম সমকালকে বলেন, মে মাসে বাংলাদেশে গরম পড়ে। কিন্তু চলতি বছরে টানা বৃষ্টির কারণে গরম বাড়তে পারেনি।

আবহাওয়াবিদরা জানিয়েছেন, টানা ঝড়বৃষ্টির কারণে তাপপ্রবাহ এবার ভারত পেরিয়ে বাংলাদেশের সীমানায় প্রবেশ করতে পারেনি। বৃষ্টির বিরামে ধীরে ধীরে তাপদাহের বিস্তার হচ্ছে। জুনে বঙ্গোপসাগর থেকে বর্ষার মৌসুমি বায়ু বাংলাদেশের ওপর বিস্তৃত হয়। সাগর থেকে জলীয়বাষ্পপূর্ণ মৌসুমি বায়ু উপকূলে উঠলে গরম কাটবে বলে জানিয়েছেন তারা।

আবহাওয়ার পূর্বাভাসে জানানো হয়েছে, সোমবার রংপুর, রাজশাহী, সিলেট ও ময়মনসিংহ বিভাগের অনেক জাগয়ায় বৃষ্টি হতে পারে। ঢাকা ও চট্টগ্রাম বিভাগের দু-এক জায়গায় বৃষ্টিপাতের সম্ভাবনা রয়েছে। মাসে শুরুতে আবহাওয়ার পূর্বাভাসে জানানো হয়েছিল, মে মাসে দেশের উত্তর-পশ্চিমাঞ্চলে একটি তীব্র তাপপ্রবাহ (৪০ ডিগ্রি সেলসিয়াসের বেশি তাপ) বইতে পারে। শাহীনুল ইসলাম বলেন, গরম বাড়লেও তীব্র প্রবাহের শঙ্কা নেই।

print

LEAVE A REPLY