মুশফিকের মহাকাব্যিক ইতিহাস: ইনিংস ঘোষণা

মুশফিকুর রহিমের মহাকাব্যিক ইতিহাস রচনাকারী দ্বিশতক ও মুমিনুল হকের সেঞ্চুরিতে ৭ উইকেটে ৫২২ রান তুলে ইনিংস ঘোষণা করেছে বাংলাদেশ। দলের পক্ষে ২১৯ রানে অপরাজিত থাকেন মুশফিক। মিরাজ অপরাজিত থাকেন ৬৮ রানে। সেইসঙ্গে বাংলাদেশের প্রথম ব্যাটসম্যান হিসেবে তো বটেই, টেস্ট ক্রিকেটে প্রথম উইকেটকিপার ব্যাটসম্যান হিসেবে দুটি ডাবল সেঞ্চুরি করে ইতিহাসে নাম লিখিয়ে ফেললেন সাবেক টেস্ট অধিনায়ক মুশফিক।

গতকাল রবিবার টসে জিতে ব্যাট করতে নেমে দলীয় ২৬ রানে টপ অর্ডারের তিন ব্যাটসম্যান ইমরুল কায়েস, লিটন দাস ও মোহাম্মদ মিঠুন আউট হলে চরম ব্যাটিং বিপর্যয়ে পড়ে দল। সেখান থেকে ২৬৬ রানের রেকর্ড জুটি গড়ে দলকে খাদের কিনার থেকে টেনে তুলেন মুশফিক ও মুমিনুল।

দিনের শেষবেলায় চাতারার বলে পয়েন্টে ক্যাচ দিয়ে ফেরার আগে ১৬১ রান করেন মুমিনুল। এরপরই জার্ভিসের তৃতীয় শিকার হন ৪ রান করা তাইজুল।

দ্বিতীয় দিন সকালে আগের দিন ১১১ রান নিয়ে অপরাজিত থাকা মুশফিক অধিনায়ক মাহমুদউল্লাহকে নিয়ে দেখেশুনে এগোতে থাকে। প্রথম সেশনে অবিচ্ছিন্ন থাকে এই জুটি। ৭৩ রানের জুটি গড়েন তারা।

দলীয় ৩৭২ রানে ব্যক্তিগত ৩৬ রানে জার্ভিসের বলে উইকেট কিপারের হাতে তালুবন্দি হন রিয়াদ। তবে প্রথম টেস্টে দুই ইনিংসেই ভালো ব্যাট করা আরিফুল মাত্র ৪ রান করে জার্ভিসের পঞ্চম শিকার হন।

এরপর অষ্টম উইকেট জুটিতে অলরাউন্ডার মেহেদি হাসান মিরাজকে নিয়ে ১৪৪ রানের জুটি গড়েন মুশফিক। মুশফিক ক্যারিয়ারের দ্বিতীয় ডাবল সেঞ্চুরি তুলে নেন। এতদিন টেস্টে ২১৭ রান নিয়ে সর্বোচ্চ ইনিংসটি ছিল সাকিব আল হাসানের। আজ সাকিবকে টপকে শীর্ষে উঠে গেলেন মুশি। ক্যারিয়ারের দ্বিতীয় অর্ধশতক পেয়েছেন মিরাজ।

জিম্বাবুয়ের বোলারদের মধ্যে কাইল জার্ভিস ২৮ ওভারে ৭১ রান দিয়ে ৫টি উইকেট নেন। চাতারা তিরিপানো নেন একটি করে উইকেট।

সংক্ষিপ্ত স্কোর: বাংলাদেশ ১ম ইনিংস: ১৬০ ওভারে ৫২২/৭ ইনিংস ঘোষণা, (লিটন ৯, ইমরুল ০, মুমিনুল ১৬১, মিঠুন ০, মুশফিক ২১৯*, তাইজুল ৪, মাহমুদউল্লাহ ৩৬, আরিফুল ৪ ও মিরাজ ৬৮*। জার্ভিস ২৮-৬-৭১-৫, চাটারা ২২.২-১২-৩৪-১, টিরিপানো ২৪.৪-৬-৬৫-১, রাজা ২২-১-১১১-০, উইলিয়ামস ৩০-৪-৮০-০, মাভুটা ৩১-১-১৩৭-০, মাসাকাদজা ২-০-৭-০)

ব্রেকিংনিউজ

print

LEAVE A REPLY