গোবিন্দগঞ্জে হোটেলে আটকে রেখে রাতভর ৫ম শ্রেনীর ছাত্রীকে ধর্ষণ !

16.-dhorshonগাইবান্ধার গোবিন্দগঞ্জে বিয়ের প্রলোভনে ৫ম শ্রেনির এক স্কুল ছাত্রীকে শাকিল নামের এক বখাটে যুবক অপহরন করে বগুড়ার একটি হোটেলে জোরপূর্ব্বক রাতভর ধর্ষণ করেছে।
মামলা সূত্র জানা যায়, গোবিন্দগঞ্জ পৌরসভার কালিকাডোবা গ্রামের রিক্সা চালক খোরশেদ মন্ডলের কন্যা ও পাশ্ববর্তী গুমানীগঞ্জ ইউনিয়নের মিরকুচি মদনতাইর (বালুপাড়া) আনন্দ স্কুলের ৫ম শ্রেণির ছাত্রী ছদ্ম নাম মোছাঃ বীথি খাতুন (নাম প্রকাশ করা হলনা -) (১৩) কে স্কুলে যাওয়া আসার পথে একই গ্রামের শামসুল ইসলাম শুকরার বখাটে ছেলে শাকিল (২০) প্রতিদিন প্রেম নিবেদন সহ বিভিন্ন কুপ্রস্তাব দিত।
মোছাঃ বীথি খাতুন (ছদ্দ নাম) উক্ত প্রস্তাবে রাজি না হয়ে বিষয়টি তার পিতা খোরশেদ মন্ডলকে জানায়।
খোরশেদ মন্ডল নিষেধ করলে শাকিল আরও ক্ষিপ্ত হয় এবং বিভিন্ন রকম ভয়ভীতি ও হুমকী প্রদর্শন করে বীথির ক্ষতি করার চেষ্টা করে।
এক পর্যায়ে গত (২৮ এপ্রিল) মঙ্গলবার রাত ১১টার দিকে শাকিল বিয়ের প্রলোভনে ফুসলিয়ে বীথিকে অপহরন করে বগুড়া নিয়ে গিয়ে একটি হোটেলে রাতভর ধর্ষণ করে।
পরদিন বুধবার (২৯ এপ্রিল) সন্ধ্যা ৭টার দিকে বীথিকে কালিকাডোবা গ্রামের নয়নসাথী নার্সারীর কাছে রেখে শাকিল পালিয়ে যায়।
এ ঘটনায় গোবিন্দগঞ্জ থানায় দায়ের ধর্ষণ মামলার তদন্ত কর্মকর্তা এস আই আনোয়ার হোসেন মঙ্গলবার (৫ মে) সময়েরকণ্ঠস্বরকে জানান, ভিকটিমের মেডিকেল টেষ্ট করা হয়েছে। আসামী পালাতক আছে গ্রেফতারে জোর প্রচেষ্টা চলছে বলেও জানান (এস আই)।
এ ঘটনায় থানায় মামলা দায়ের হলেও পুলিশ কোন পদক্ষেপ গ্রহন না করায় ধর্ষিতার পরিবার তীব্র ক্ষোভ জানিয়েছে খোরশেদ মন্ডল।

print

LEAVE A REPLY