সুবর্ণচরের গণধর্ষণের রেশ কাটতে না কাটতেই এবার মৌলভীবাজারে এক সন্তানের জননীকে গণধর্ষণ

নোয়াখালীর সুবর্ণচরে গৃহবধূকে গণধর্ষণের রেশ কাটতে না কাটতেই এবার মৌলভীবাজারের জুড়ী উপজেলায় এক সন্তানের জননীকে (২২) গণধর্ষণের অভিযোগ পাওয়া গেছে।

গণধর্ষণের ঘটনায় জড়িত তিনজন। এর মধ্যে ফজলু এবং মাসুক নামে দুইজনকে গ্রেফতার করেছে পুলিশ। গত বুধবার রাতে উপজেলার কাশীনগর এলাকায় এ ঘটনা ঘটে।

নির্যাতিত নারীর বাবা বাদী হয়ে বৃহস্পতিবার এ ঘটনায় জড়িত ফজলু, মাসুক ও রিপনকে আসামি করে জুড়ী থানায় ধর্ষণ মামলা করেন।

ওই নারীর বাবা জানান, তিনি মেয়েকে ফুলতলায় বিয়ে দেন। তার মেয়ের ঘরে এক কন্যা সন্তান রয়েছে। মানসিক ভারসাম্যহীন হওয়ায় মেয়ের স্বামী তাকে তালাক দেয়। কিন্তু মেয়ে ও নাতনি তার বাড়িতে থাকে। মাঝে মধ্যে তার মেয়ে একা ঘুরে বেড়াত। বুধবার রাতে প্রতিবেশী সিএনজি অটোরিকশাচালক মাসুক তার মেয়েকে রাস্তা থেকে তুলে নিয়ে যায়। পরে তার সহযোগী রিপন ও ফজলু মিলে রাতভর ধর্ষণ করে।

জুড়ী থানা পুলিশের ভারপ্তাপ্ত কর্মকর্তা (ওসি) মো. জাহাঙ্গীর হোসেন সরদার বলেন, ওই নারীকে গণধর্ষণের ঘটনায় মামলা হয়েছে। মামলার তিন আসামির মধ্যে দুইজনকে গ্রেফতার করা হয়েছে। এর মধ্যে একজন জবানবন্দি দিয়েছে। অপর আসামি রিপনকে গ্রেফতারের চেষ্টা চলছে।আস

উৎসঃ   জাগোনিউজ
print

LEAVE A REPLY